You are here
Home > জাতীয় > ৫৭ ধারা নিয়ে সরকারের সঙ্গে বসবেন গণমাধ্যম মালিকরা

৫৭ ধারা নিয়ে সরকারের সঙ্গে বসবেন গণমাধ্যম মালিকরা

নিজস্ব প্রতিবেদক :

তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারার অপপ্রয়োগ রোধ এবং সাংবাদিকদের বেতন কাঠামো নির্ধারণে সরকারের সঙ্গে আলোচনা করবেন গণমাধ্যমের মালিকরা।

আজ মঙ্গলবার সকালে ঢাকা ক্লাবে প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার মালিকরা যৌথভাবে এই সিদ্ধান্ত নেন। সভায় টেলিভিশন মালিকদের সংগঠন অ্যাটকো ও সংবাদপত্র মালিকদের সংগঠন নোয়াবের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

নোয়াবের সভাপতি মতিউর রহমান বলেন, সাংবাদিকদের বেতন-ভাতা, ওয়েজবোর্ড, বিজ্ঞাপনসহ বেশ কিছু বিষয়ে প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় সমস্যা রয়েছে। পাশাপাশি সরকারের ৫৭ ধারার প্রয়োগ নতুন উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাই এসব সমস্যা নিয়ে সরকারের সঙ্গে আলোচনা করে সমাধান করা উচিত বলে জানান মতিউর রহমান।

মতিউর রহমান আরো বলেন, ‘সংবাদপত্রের স্বাধীনতার প্রশ্নটা আছে, সেখানে ৫৭ ধারার বিষয়টা এসেছে, সে ধারাটা রেখে ১৯ নম্বর ধারায় নেওয়ার চেষ্টা চলছে। এই বিষয়টা নিয়ে আমার উদ্বিগ্ন, এই বিষয়টা নিয়ে আমরা যৌথভাবে একমত হয়েছি। এ বিষয়টা নিয়ে আমরা সরকারে সঙ্গে কথা বলব, যাতে করে এই বিষয়গুলো নিয়ে সরকার আমাদের অবস্থান বুঝতে পারে। এবং সেখানে আমরা পরামর্শ দিব কী করে সংবাদপত্রে স্বাধীনতা অক্ষুণ্ণ রেখে ডিজিটাল জগতের সমস্যার সংকট তৈরি হয়েছে, সেগুলোকে কীভাবে সমাধান করা যায়।’

অ্যাটকো সভাপতি, ব্যবসায়ী সালমান এফ রহমান বলেন, গণমাধ্যমের সমস্যা নিয়ে সরকারের সঙ্গে আলোচনা করা জরুরি হয়ে পড়েছে। তাই অ্যাটকো ও নোয়াব যৌথভাবে আলোচনা করে সরকারের সঙ্গে বসে সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করবে।

সালমান এফ রহমান আরো বলেন, ‘ডিজিটাল টেকনোলজি, এটাতে অনেক অনেক নতুন নতুন চ্যালেঞ্জ আসতেছে। শুধু আমাদের ইন্ডাস্ট্রিতে না, সরকারেও। এটা কীভাবে নিয়ন্ত্রণ করা যায়, এটা আসলে একটা চ্যালেঞ্জিং বিষয়। আমাদের নিজেদের মধ্যে একটু বসা দরকার। এই চ্যালেঞ্জগুলো কীভাবে ফেইস করব। যে সমস্যাগুলো আছে কীভাবে সমাধান করতে পারি। এগ্রিড একটা সমাধান, এইভাবে এই চ্যালেঞ্জগুলো সমাধান করতে পারব। এটা নিয়ে তারপর আমরা সরকারের সঙ্গে বসব।’

Leave a Reply

Top