You are here
Home > জাতীয় > ৫০ হাজার চিকিৎসক এবং ৪০ হাজার কর্মচারী নিয়োগের আশ্বাস স্বাস্থ্যমন্ত্রীর

৫০ হাজার চিকিৎসক এবং ৪০ হাজার কর্মচারী নিয়োগের আশ্বাস স্বাস্থ্যমন্ত্রীর

স্টাফ রিপোর্টারঃ চিকিৎসা খাতে সারাদেশে ৫০ হাজার চিকিৎসক এবং ৪০ হাজার কর্মচারী নিয়োগের আশ্বাস দিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মো. নাসিম এমপি। রবিবার বরিশাল শেরে-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১২ শয্যার ইন্টেনসিভ কেয়ার ইউনিট (আইসিইউ) উদ্বোধন কালে তিনি এ কথা বলেন।

উদ্বোধনের পর মন্ত্রী আইসিইউ ইউনিট ঘুরে দেখেন। আইসিইউ’র বিভাগের সার্বিক চিত্রে সন্তোষ প্রকাশ করেন। এ সময় জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ এমপি, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক তালুকদার মো. ইউনুস এমপি, সদর আসনের এমপি জেবুন্নেছা আফরোজ এবং বরিশাল-৩ আসনের এমপি শেখ টিপু সুলতান এমপি সহ সরকারী বিভিন্ন দপ্তরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

আইসিইউ ইউনিট থেকে বেড়িয়ে যাওয়ার সময় সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থ্য মন্ত্রী বলেন, শেরে-ই বাংলা মেডিকেলের বর্ধিত ভবনের অসমাপ্ত কাজ যত দ্রুত সম্ভব শুরু এবং শেষ করার জন্য তিনি সংশ্লিস্টদের নির্দেশ দিয়েছেন। আড়াই শ’ শয্যা বিশিস্ট বর্ধিত ভবনটির নির্মান কাজ শেষ হলে হাসপাতালের রোগী সংকুলানে স্থান সংকটের সমাধান হবে।

শেরে-ই বাংলা মেডিকেলে কর্মচারী সংকট প্রকটের বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, শুধু বরিশাল নয়, আইনগত জটিতলার কারনে সারা দেশে কর্মচারী সংকট রয়েছে। জটিলতা কাটিয়ে ৪০ হাজার কর্মচারী নিয়োগ দেয়া হচ্ছে। কর্মচারী নিয়োগ হয়ে গেলে শুধু বরিশালেই নয়, সারা দেশে কর্মচারী সংকটের সমাধন হবে বলে তিনি আশাবাদী।

পরে মন্ত্রী মেডিকেল কলেজের সভাকক্ষে শেরে-ই বাংলা মেডিকেলের স্বাস্থ্য সেবা উন্নয়ন কমিটি এবং চিকিৎসক ও মেডিকেল কলেজের শিক্ষকদের সাথে এক মতবিনিময় সভা করেন। সভায় স্বাস্থ্য মন্ত্রীর কাছে হাসপাতালের বিভিন্ন সমস্যা ও সংকটের কথা তুলে ধরেন পরিচালক ডা. এসএম সিরাজুল ইসলাম।

জবাবে মন্ত্রী আগামী ৬ মাসের মধ্যে বর্ধিত ভবনের কাজ সম্পন্ন করে চালু করার প্রতিশ্রুতি দেন। এছাড়া সারা দেশে ৫০ হাজার চিকিৎসক এবং ৪০ হাজার কর্মচারী নিয়োগ করে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার আশ্বাস দেন। এসময় দেশে কোন নার্স সংকট নেই বলেও সভায় জানান মন্ত্রী।

এরপর স্বাস্থ্য মন্ত্রী মেডিকেল কলেজের অডিটরিয়ামে বাংলাদেশ মেডিকেল এ্যাসোসিয়েশনের আহ্বানে বরিশাল বিভাগীয় চিকিৎসক সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেন।

প্রসঙ্গত ১৯৬৮ সালে প্রতিষ্ঠিত ৫শ’ শয্যার শেরে-ই বাংলা মেডিকেলে গড়ে রোগী ভর্তি থাকে দেড় হাজারেরও বেশী। সমস্যা সমাধানে গণপূর্ত বিভাগের মাধ্যমে হাসপাতালের মূল ভবনের পাশেই আড়াই শ’ শয্যা বিশিস্ট একটি ৫তলা ভবন নির্মাণের কাজ শুরু হয়। কিন্তু গত ৭ বছর ধরে ভবন নির্মাণ কাজ বন্ধ থাকায় রোগীর স্থান সংকুলান দিন দিন আরো প্রকট হচ্ছে।

Leave a Reply

Top