You are here
Home > প্রচ্ছদ > ৪ দফা দাবিতে জাবি উপাচার্যকে ৫ দিনের আল্টিমেটাম

৪ দফা দাবিতে জাবি উপাচার্যকে ৫ দিনের আল্টিমেটাম

বিশেষ প্রতিবেদকঃ চার দফা দাবি বাস্তবায়নের জন্য জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ( জাবি) উপাচার্যকে ৩রা জুন পর্যন্ত ৫ দিনের আল্টিমেটাম দিয়েছে শিক্ষক-শিক্ষার্থী ঐক্যমঞ্চ। সোমবার দুপুর ৩টার দিকে উপাচার্যকে এই আল্টিমেটাম দেয়া হয়।

আল্টিমেটাম দেওয়ার বিষয়টি বাংলাদেশ প্রতিদিনকে নিশ্চিত করেছেন দর্শন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক রায়হান রাইন।

চার দফা দাবি হচ্ছে- আন্দোলনকারী ৪২ শিক্ষার্থীর নামে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহার করতে হবে, আবাসিক হল খুলে দিতে হবে, পুলিশী হামলায় আহত শিক্ষার্থীদের চিকিৎসার ব্যয় বহন করতে হবে, গোলযোগপূর্ণ পরিস্থিতিতে প্রক্টরের নিষ্ক্রীয় ভূমিকার জাবাবদিহীতা।

দাবি না মানলে পরদিন ৪ঠা জুন মানববন্ধন কর্মসূচিসহ আরো কঠোর আন্দোলনে যাওয়ার কথা বাংলাদেশ প্রতিদিনকে জানান ছাত্র ইউনিয়ন জাবি সংসদের সভাপতি ইমরান নাদিম।

প্রসঙ্গত, গত ২৬ মে ভোরে জাবি সংলগ্ন ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে বাস চাপায় নিহত হয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের নাজমুল হাসান রানা এবং মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের আরাফাত হোসেন। কিছু দিন পর পর এই সড়কে শিক্ষার্থী নিহতের প্রতিবাদে এবং নিরাপদ সড়কের দাবিতে পাঁচ দফা দাবি বাস্তবায়নে ২৬ মে এবং ২৭ মে মহাসড়ক অবরোধ করে শিক্ষার্থীরা।

২৭ মে বিকালে পুলিশের হস্তক্ষেপে আন্দোলনকারীরা রাস্তা ছাড়তে বাধ্য হয়। এ সময় পুলিশ আন্দোলনকারীদের হঠাতে টিয়ার শেল, রাবার বুলেট ছোড়ে ও লাঠিচার্জ করে। আন্দোলনকারীরাও পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল ছোড়ে। সাংবাদিক, নিরাপত্তা কর্মকর্তা সহ ১০ শিক্ষার্থী আহত হয়। তাদেরকে উদ্ধার করে সাভারের একটি বেসরকারী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সন্ধ্যায় আন্দোলনকারীরা উপাচার্যের বাসভবনের তালা ভেঙে ভেতরে ঢুকে পড়ে এবং সেখানে ভাঙচুর চালায়। বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীদের ছোড়া ইটের টুকরায় এবং ধ্বস্তাধ্বস্তিতে ৭ শিক্ষক আহত হয়।

রাত সাড়ে বারোটায় জরুরী সিন্ডিকেট সভায় বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করা হয় এবং সকল  শিক্ষার্থীকে সকাল দশটার মধ্যে হল ছাড়ার নির্দেশ দেয়া হয়। একই সময়ে আশুলিয়া থানা পুলিশ উপাচার্যের বাসভবনের ভেতরে থাকা ১০ ছাত্রীসহ আন্দোলনকারী ৪২ শিক্ষার্থীকে গ্রেপ্তার করে। ২৮ মে বিকাল ৫টায় গ্রেফতারকৃতদেরকে জামিনে মুক্তি দেয়া হয়।

Leave a Reply

Top