হেলে পড়লো ৩৩ হাজার ভোল্টের তারসহ বিদ্যুৎ লাইনের ৭টি খুঁটি – Live News BD, The Most Read Bangla Newspaper, Brings You Latest Bangla News Online. Get Breaking News From The Most Reliable Bangladesh Newspaper; livenewsbd.co
You are here
Home > সারা বাংলা > জেলার খবর > হেলে পড়লো ৩৩ হাজার ভোল্টের তারসহ বিদ্যুৎ লাইনের ৭টি খুঁটি

হেলে পড়লো ৩৩ হাজার ভোল্টের তারসহ বিদ্যুৎ লাইনের ৭টি খুঁটি

এস,এম ইসাহক আলী রাজু, নাটোর :

নাটোর শহরের সড়ক সম্প্রসারণ কাজের সময় ব্যস্ত সড়কে একসাথে ।
আজ রোববার দুপুরে আকস্মিক এ ঘটনায় বন্ধ হয়ে গেছে জেলা শহরের বিদ্যুৎ সরবরাহ। শহরের হরিশপুর বাইপাস সংলগ্ন হোটেল ভিআইপি সামনে এ ঘটনা ঘটে। অলৌকিক ভাবে এ ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি। তবে ঘটনার সময় ব্যস্ত সড়কে চলাচলরত যানবাহনের যাত্রীরা তারা খুঁিট হেলে পড়াতে দেখে আতঙ্কে চিৎকার করতে থাকে। ঘটনার খবর পেয়ে জেলা প্রশাসন, সড়ক ও বিদ্যুৎ বিভাগের লোকজন ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। এ ঘটনায় জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সম্প্রসারণ কাজের অনিয়ম খতিয়ে দেখতে দুই সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির সদস্যরা হলেন স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক গোলাম রাব্বী ও সদর উপজেলা এসিল্যান্ড শামীম ভুইয়া।
স্থানীয়দের অভিযোগ, রাস্তার কাজে নিয়োজিত সড়ক ও জনপথ বিভাগের কর্মকর্তাদের উদাসীনতায় এমনটি ঘটেছে। তবে সড়ক বিভাগের দাবী, নির্মাণ ও সংস্কার কাজের সময় যে কোন দূর্ঘটনা ঘটতে পারে। তবে আশার কথা হল বড় ধরণের কোন ক্ষয়ক্ষতি বা প্রাণহানী হয়নি।
প্রত্যক্ষদর্শী ও বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগের কর্মকর্তাদের সূত্রে জানা যায়, রোববার সড়ক সম্প্রসারণ কাজ চলছিল হরিশপুর এলাকায়। দুপুর সাড়ে ১২টায় স্থানীয় ভিআইপি আবাসিক হোটেল থেকে শেরে বাংলা উচ্চ বিদ্যালয় পর্যন্ত রাস্তান সামনে আচমকা হেলে পড়ে বিদ্যুত লাইনের একটি খুঁটি। এর কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে পর্যায়ক্রমে পড়ে যায় আরো ৬টি খুঁটি। খুঁটি হেলে পড়তে দেখে রাস্তায় চলাচলকারী আটোরিক্সার যাত্রী, পথচারী ও স্কুলের শিক্ষার্থীরা চিৎকার এবং ছুটোছুটি করতে থাকে। তবে কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। এ সময় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে চলা একটি বৈঠক থেকে চলে আসেন বিদ্যুৎ বিতরণ ও সসড়ক বিভাগের লোকজন। ঘটনার পরপরই খুঁটি অপসরণসহ লাইন মেরামতের কাজ শুরু করেছে বিদ্যুৎ বিভাগ।
এ বিষয়ে নাটোর বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগ- নেস্কোর নির্বাহী প্রকৌশলী এস এম মাসুদ একযোগে ৭টি খুঁটি হেলে পড়ার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, খুটি হেলে পড়ার পর থেকে অধিকাংশ এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। বিকল্প উপায়ে বিদ্যুৎ সরবরাহ করার চেষ্টা করা হচ্ছে। সম্ভব না হলে হেলে পড়া খুঁটিসহ বিদ্যুৎ সরবরাহ করতে ন্যুনতম ৩দিন সময় লাগতে পারে। বিষয়টি জেলা প্রশাসক ও সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলীকে অবহিত করা হয়েছে। নিয়োজিত শ্রমিকদের আসাবধানতা কারণে খুঁটি হেলে পড়ার মতো ঘটনা ঘটেছে জানিয়ে সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আশরাফুল ইসলাম প্রাং জানান, ভেকু মেশিন দিয়ে কাজ করার সময় শ্রমিকদের অসাবধানতার কারনে এটি হয়েছ্।ে যেহেতু খুঁটিগুলো নতুন বসানো, তাই গোড়ার মাটি নরম থাকায় এই বিপত্তি ঘটেছে। তবে ঠিকাদারকে ইতোপূর্বে সতর্ক করা হয়েছিল।
উল্লেখ্য, মাস তিনেক আগেও একইভাবে শহরের আলাইপুর এলাকায় রাস্তা সম্প্রসারণের সময় হেলে পড়েছিল বিদ্যুৎ লাইনের ৫টি খুঁটি।
এদিকে দুপুর থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ থাকায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ক্রীড়ামোদী দর্শকরা। আজ রোববার সন্ধ্যায় শুরু হতে যাওয়া বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যেকার নিদাহাস ফাইনাল ম্যাচটি দেখা যাবে কি না তা নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছে তারা।

Leave a Reply

Top