You are here
Home > দূরনীতি ও অপরাধ > সাফাত তখন তরুণীকে নিয়ে নাচছিল

সাফাত তখন তরুণীকে নিয়ে নাচছিল

আদালত প্রতিবেদকঃ হালের আলোচিত ধর্ষণের ঘটনার একটি বনানীর রেইনট্রি হোটেলে দুই বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের মামলার প্রধান আসামি সাফাত আহমেদের বন্ধু সাদমান সাকিফ। মূলত তার মাধ্যমেই সাফাতের সঙ্গে ওই দুই তরুণীর পরিচয় হয়। এরপর ঘটনার দিন রাতে ধর্ষণের আগে ওই দুই তরুণীর সঙ্গে মদ পান, মিউজিকের তালে তালে নাচসহ সাফাত ও তার বন্ধু নাঈমের অন্তরঙ্গ নানা মুহূর্তের বর্ণনা প্রকাশ পেয়েছে মামলার অন্যতম আসামি সাদমান সাকিফের আদালতে দেয়া জবানবন্দিতে। গত ১৮ মে মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সাদবির ইয়াসিন আহসানের আদালতে ১৬৪ ধারায় তিনি এই জবানবন্দি দেন।

সাকিফ জানান, দেড় বছর আগে নির্যাতিত তরুণী (মামলার বাদী)’র সঙ্গে সাকিফের পরিচয় ও বন্ধুত্ব হলেও সাফাতের সঙ্গে তার পরিচয় হয় গত ১৯ মার্চ। ওই দিন রাতে সাফাতের সঙ্গে পিকাসো রেস্টুরেন্টে ওই দুই তরুণীকে পরিচয় করিয়ে দেন সাদমান।

সাকিফ তার জবানবন্দিতে আর বলেন, ঘটনার দিন সাফাত তাকে ফোন দিয়ে জন্মদিনের প্রোগ্রামে যোগ দেওয়ার জন্য রেইনট্রি হোটেলে যেতে বলে। হোটেলে পৌঁছনোর পর হোটেলের রুমের নানা দৃশ্যের বর্ণনা দিয়ে সাকিফ বলেন, এক তরুণী (শাহরিয়ারের গার্লফ্রেন্ড) ব্যতীত সবাই তখন মদ পান এবং মজা করছিল। এরপর নাঈম ছাড়া সবাই ছাদে গিয়ে সুইমিং করেন। সুইমিং শেষে তারা কেক কাটেন। রুমে ফিরে তারা রাতের খাবার খান জানিয়ে সাকিফ বলেছেন, এরপর সাফাত, নাঈম, শাহরিয়ার, সে (মামলার বাদী) ও তার বান্ধবী ড্রিংক করে। এরপর সবাই নাচতে নাচতে মদ পান করছিল। একপর্যায়ে নাঈম ওই তরুণীর (বাদী)’র বান্ধবীকে নিয়ে একটি রুমে চলে যায়। তবে সাফাত তখনও ওই তরুণীকে নিয়ে আমার সামনে নাচছিল। একপর্যায়ে তারা অন্তরঙ্গভাবে নাচতে থাকে এবং… খেতে থাকে। এ অবস্থায় সাকিফ অস্বস্তিবোধ করে বাসায় চলে যান বলে জবানবন্দিতে জানান।

Leave a Reply

Top