You are here
Home > সারা বাংলা > জেলার খবর > শিল্প প্রতিষ্ঠানের দখলে থাকা সরকারি জমি উদ্ধার করে চারা রোপণ।

শিল্প প্রতিষ্ঠানের দখলে থাকা সরকারি জমি উদ্ধার করে চারা রোপণ।

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

গাজীপুরে পাল্লা দিয়ে বন দখলে নেমেছেন বিভিন্ন শিল্পপ্রতিষ্ঠানের মালিকরা। ২০১৫ সালে বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয় থেকে প্রকাশিত ৫৯ বন দখলকারী শিল্পপ্রতিষ্ঠানের তালিকার বাইরেও অসংখ্য প্রতিষ্ঠান, ব্যক্তি ও গোষ্ঠী ইতোমধ্যে গাজীপুরের বিস্তীর্ণ বনাঞ্চল দখল করে গড়ে তুলেছে শিল্পকারখানা, বসতবাড়ি ও খামার। ঢাকা বনবিভাগের অধীনে ৬টি রেঞ্জ (অঞ্চল) রয়েছে। ৬টি রেঞ্জই গাজীপুর জেলায় অবস্থিত। গাজীপুরের শ্রীপুরে প্রায় এক মাস আগে বন বিভাগের জমিতে অবৈধভাবে দখলকৃত ডিবিএল গ্রুপের কাঁটাতারের বেড়া অপসারণ করে সাইনবোর্ড স্থাপন করেন বন বিভাগ। সাইনবোর্ড স্থাপন করার ১ মাস পরেই সেই সাইনবোর্ড লাপাত্তা। করে আবারো দখল করে নিয়েছে ডিবিএল গ্রুপ নামের এক শিল্প প্রতিষ্ঠান। কাঁটাতারের সেই বেড়া ভেঙ্গে উক্ত ২ একর জমিতে চারা রোপণ করেছেন শ্রীপুর রেঞ্জের সাতখামাইর বিট কর্মকর্তা।
উপজেলার টেপিরবাড়ি গ্রামে ১৪ আগস্ট মঙ্গলবার সকাল থেকে উদ্ধার হওয়া বন বিভাগের জমিতে সাতখামাইর বিট কর্মকর্তা নূরুল ইসলাম এর নেতৃত্বে সকাল থেকেই প্রায় ২ একর জমিতেই আকাশমনি চারা রোপণ করা হয়। এসময় বন বিভাগের শ্রীপুর রেঞ্জ অফিসার মোজাম্মেল হোসেন সহ,শ্রীপুর রেঞ্জের সকল বিট কর্মকর্তা এবং বন বিভাগের নিজস্ব ৩০-৩৫ জন নিরাপত্তা কর্মীসহ মোট ৫৫-৬০ জন এই চারা রোপন কর্মসূচীতে স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে অংশগ্রহণ করেন। এ ব্যাপারে সাতখামাইর বিট কর্মকর্তা নূরুল ইসলাম বলেন, বন বিভাগের জমি যারাই দখল করুক না কেনো বন বিভাগ তার নিজস্ব গতিতেই আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহন করেছে এবং করবে। ডিবিএল গ্রুপ বন বিভাগের বেশ কিছু জমি অবৈধ ভাবে দখল করে নিয়েছিলো সে ব্যাপারে বন বিভাগের নিয়ম অনুযায়ী অবৈধ দখলকৃত জমি উদ্ধার করে চারা লাগানো হচ্ছে।

শ্রীপুর রেঞ্জ অফিসার মোজাম্মেল হোসেন বলেন, ডিবিএল গ্রুপের অবৈধভাবে দখলকৃত জমিতে প্রায় ১ মাস আগে বন বিভাগের সাইনবোর্ড লাগিয়ে রেখে গেলেও আমরা এসে সেই সাইনবোর্ড পাইনি। ডিবিএল গ্রুপ বন বিভাগের প্রায় ২ একর জমি অবৈধভাবে দখল করেছে, আমরা এই জমি উদ্ধার করে সামাজিক বনায়ন করার প্রচেষ্টা চালাচ্ছি।

Leave a Reply

Top