You are here
Home > খেলাধুলা > মোস্তাফিজ-তাসকিনকে দিয়ে জুটি গড়তে চান ওয়ালশ

মোস্তাফিজ-তাসকিনকে দিয়ে জুটি গড়তে চান ওয়ালশ

ক্রিয়া প্রতিবেদকঃ ‘আচ্ছা, ক্রিকেট কি শুধুই দলগত খেলা?’ ভাবছেন এ আবার কেমন বিদঘুটে প্রশ্ন! ক্রিকেট ১১ জনে মিলে খেলে। দলগত অবশ্যই। কিন্তু তারপরও জাগে প্রশ্ন আসলেই কি তাই? এর বাইরে আর কিছুই নেই?

একদমই যে নেই, তা-ই বা কি করে বলা? আছে। ক্রিকেটে দলগত স্কোরের পাশাপাশি ব্যক্তিগত স্কোরটাও পায় অনেক গুরুত্ব। তার চেয়ে বড় কথা, ব্যাটিং এবং বোলিং জুটির গুরুত্বও প্রচুর।

কেউ একজন ব্যাট হাতে অসাধারণ খেলে হয়ত মাঠ মাতাতে পারেন। গ্যালারিতে ভক্ত-সমর্থকদের মাঝে আনন্দের হিল্লোল বয়ে যায়। প্রতিপক্ষ বোলিং-ফিল্ডিং হয়ে ওঠে এলোমেলো। কিন্তু তারপরও দল জেতাতে অন্য কারো সাহায্য লাগে। অন্য কারো সাহায্য ছাড়া একা দল জেতানো যায় না। অন্তত একটা জুটি দরকার পড়ে।

আজ পর্যন্ত ক্রিকেটে যত ম্যাচ জেতানো ইনিংস আছে, তার সবকটার সাথেই অন্য কারোর ভূমিকাও আছে। হোক তা আগে কিংবা পরে। একটি বড় ও কার্যকর জুটি গড়া ছাড়া বড়সড় স্কোরও গড়া যায় না। আবার রান তাড়া করে জেতাও সম্ভব নয়।

তাই ব্যাটিংয়ে ‘জুুটির’ রয়েছে অন্যরকম গুরুত্ব। সেটা শুধু ব্যাটিংয়ে নয়, বোলিংয়েও। কারো একার বিধ্বংসী বোলিংয়ে প্রতিপক্ষ ব্যাটিং লাইন-আপে কাঁপন ও ভাঙ্গন ধরে। কিন্তু দুদিক থেকে ভালো ও সমীহ জাগানো বোলিং হলে সাফল্যের ভিত রচিত হয়।

ক্রিকেটে বিশেষ করে বোলিংয়েও ‘জুটি প্রথা’ অনেক পুরনো। লিলি-থমসন, মাইকেল হোল্ডিং- অ্যান্ডি রবার্টস, কার্টলি অ্যামব্রোস-কোর্টনি ওয়ালশ আর ওয়াসিম আকরাম ও ওয়াকার ইউনুস জুটির সাফল্যের গল্প এখনো সবার মুখে মুখে।
ওই চার জুটি ক্রিকেটের কিংবদন্তী হয়ে আছে। সেটা আছে মূলত জুটি হিসেবে তাদের সাফল্যের কারণে।

বাংলাদেশে সে অর্থে কখনই বোলিং জুটি গড়ে ওঠেনি। কোর্টনি ওয়ালশ দায়িত্ব নিয়ে জুটি গড়ার কথা বলেছিলেন। কিন্তু তার দায়িত্ব প্রাপ্তির প্রায় বছর ঘুরে এলো, কিন্তু জুটি গড়ে ওঠেনি এখনো। আজ আবার সেই পুরনো কথা নতুন করে তার মুখে। এ কিংবদন্তীতুল্য ফাস্ট বোলার আবার জুটি গড়ার স্বপ্নে বিভোর।

মঙ্গলবার শেরে বাংলায় সাংবাদিকদের সাথে আলাপে তার কথা, ‘আমরা আজও নিজেদের মধ্যে আলোচনায় বলেছি, ফাস্ট বোলারদের শিকারে জুটির কার্যকারিতা যথেষ্ট। আমার মনে হয় ফিজ (মোস্তাফিজ) ও তাসকিন ভালো জুটি হতে পারে। তাদেরকে বোঝানো হয়েছে, একজন ফাস্ট বোলার নিজে ভালো বল করার পাশাপাশি তার সহযোগীকে সাহায্য করলে তা দলের কাজে লাগে। আমরা সে চিন্তাই করছি। আমরা তরুণ ফাস্ট বোলারদেরও বোঝানো চেষ্টা করছি, সাফল্য পেতে হলে জুটি গড়ে তোলাটা জরুরি।’

Leave a Reply

Top