You are here
Home > প্রচ্ছদ > মহাসড়কে মৃত্যুর মিছিল, অথচ সরকার মহা আনন্দে : খালেদা জিয়া

মহাসড়কে মৃত্যুর মিছিল, অথচ সরকার মহা আনন্দে : খালেদা জিয়া

নিজস্ব প্রতিবেদক :

দেশের সড়ক-মহাসড়কের বেহাল অবস্থার সমালোচনা করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। তিনি বলেন, সারা দেশে এখন প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনা হচ্ছে। বিশেষ করে মহাসড়কে এ সরকারের আমলে প্রতিনিয়ত মৃত্যু আর মৃত্যুর মিছিল বেড়ে চলেছে। অথচ সরকার মহা আনন্দে আছে।

আজ মঙ্গলবার গুলশানের একটি মিলনায়তনে ২০-দলীয় জোটের শরিক লেবার পার্টির ইফতার অনুষ্ঠানে খালেদা জিয়া এসব কথা বলেন।

বিএনপির চেয়ারপারসন বলেন, গত ১০ বছর দেশে ভোট হয়নি। ক্ষমতায় থাকার জন্য এখনো তারা কতগুলো কৌশল ঠিক করেছে। খালেদা জিয়া বলেন, ‘নির্বাচনে জেতা যাদের নিয়ে সম্ভব, যারা তাদের জিতিয়ে দিতে পারবেন, তাদের জন্য কাজ করছে সরকার। সাধারণ মানুষের এখানে ভোটের কোনো দাম নেই। সে জন্য আমাদের দাবি দেশে ভোট হতে হবে। গত ১০ বছর দেশে ভোট হয়নি।’

বিএনপির চেয়ারপারসন বলেন, ‘এই সরকার সাধারণ মানুষের কথা চিন্তা করে না। তারা জানে কেবল তাদের ক্ষমতায় থাকতে হবে। ক্ষমতায় থাকার জন্য তারা কতগুলো কৌশল ঠিক করেছে। যাদের হাতে রাখা দরকার, তাদের অবাধ সুযোগ দিচ্ছে, বলছে নিজেরা করো। প্রয়োজনে সেখানে যেটা সাহায্য-সহযোগিতা দরকার, সেটা তারা করে দিচ্ছে।’

খালেদা জিয়া বলেন, ‘সে জন্য আমাদের দাবি দেশে ভোট হতে হবে। সব দল যাতে ভোটে অংশ নিতে করতে পারে এবং সব মানুষ যাতে কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে পারে, সে ব্যবস্থা করতে হবে। এর জন্য প্রয়োজন একটা নির্বাচনকালীন সরকার। যে সরকার নির্বাচন কমিশনকে সব ধরনের সাহায্য-সহযোগিতা করতে পারবে।’

ইফতার অনুষ্ঠানে দেশের সড়ক-মহাসড়কের বেহাল অবস্থার কথা বলতে গিয়ে খালেদা জিয়া বলেন, সারা দেশে এখন প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনা হচ্ছে। বিশেষ করে মহাসড়কে এই সরকারের আমলে প্রতিনিয়ত মৃত্যু আর মৃত্যুর মিছিল বেড়ে চলেছে। অথচ সরকার মহা আনন্দে আছে। তারা দেশে-বিদেশে ভ্রমণ করে বেড়াচ্ছেন, আকাশে ওড়েন। তারা মাটির কথা চিন্তাও করেন না, মাটির দিকে দেখেনও না যে কী অবস্থায় আছে দেশ।

সরকারের উন্নয়ন প্রকল্পের প্রতি ইঙ্গিত করে খালেদা জিয়া বলেন, তারা অনেক উন্নয়নের কথা বলে। কিন্তু রাস্তাঘাটের যে অবস্থা, সেটা দেখে কি বোঝা যায় উন্নয়ন হয়েছে দেশে? উন্নয়নের সুফল কী দেশের মানুষের কাছে পৌঁছেছে? তিনি প্রশ্ন তোলেন, যদি উন্নয়নের সুফল পৌঁছাত তাহলে দেশের মানুষ দুই বেলা পেট ভরে খেত, ভালোভাবে থাকত, শান্তিতে থাকত।

বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, ‘যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছিলাম কী দেশের এ অবস্থা দেখতে? এক পরিবার সবকিছু দখল করে নেবে। কেউ গণভবন দখল করে নেবে, অমুক বাড়ি দখল করবে, তমুক করবে…। তাদের সব নিরাপত্তা দিতে হবে। শুধু তারাই নিরাপত্তা পাবে, সাধারণ মানুষের কোনো নিরাপত্তা নেই। গুম-খুন হচ্ছে, যাকে তাকে নিয়ে যাচ্ছে।’ তিনি বলেন, আজ মানুষ পরিবর্তন চায়। জালিমদের কাছ থেকে মুক্তি চায়। এ জন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

খালেদা জিয়া পার্বত্য অঞ্চলে পাহাড়ধসে প্রাণহানির ঘটনায় শোক প্রকাশ করে আহত ব্যক্তিদের অবিলম্বে সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করার দাবি জানান।

ইফতার অনুষ্ঠানে লেবার পার্টির চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান, মহাসচিব হামদুল্লাহ আল মেহেদি, অধ্যাপক এমাজউদ্দীন আহমেদ, আমার দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমান, অধ্যাপক মাহবুবউল্লাহসহ জোটের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Top