ভোলার তজুমদ্দিনে প্রবাসির স্ত্রীর আত্নহত্যা, আটক ১ যুবক – Live News BD, The Most Read Bangla Newspaper, Brings You Latest Bangla News Online. Get Breaking News From The Most Reliable Bangladesh Newspaper; livenewsbd.co
You are here
Home > নারী ও শিশু > ভোলার তজুমদ্দিনে প্রবাসির স্ত্রীর আত্নহত্যা, আটক ১ যুবক

ভোলার তজুমদ্দিনে প্রবাসির স্ত্রীর আত্নহত্যা, আটক ১ যুবক

রাকিব আর হাছান বেপারী, ভোলা প্রতিনিধিঃ ভোলার তজুমদ্দিনে পরকীয়া প্রেমের জের ধরে হিন্দু প্রবাসির স্ত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্ন হত্যা করেন। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে লাশ ময়না তদন্তের জন্য ভোলা মর্গে প্রেরণ করেন। এ সময় এলাকাবাসী প্রেমিককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার চাঁদপুর ইউনিয়নের উত্তর কালাশা ৮নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা উমেষ চন্দ্র দাসের মেয়ে ও চরফ্যাসন উপজেলার বাসিন্দা এবং সৌদি আরব প্রবাসি পরেশ চন্দ্র দাসের স্ত্রী এক সন্তানের জননী জিকু রাণী দাসের (৩০) সাথে একই এলাকার শান্তিরঞ্জণ পালের ছেলে দিপংকর চন্দ্র পালের (৩২) পরকীয় প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। দিপংকর পেশায় একজন ইলেকট্রনিক্স ব্যবসায়ী ও শায়েস্তাকান্দি বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক।স্বামী প্রায় ২ বছর বিদেশ থাকায় পরকীয়া প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পরেন স্ত্রী জিকু রাণী দাস। নিহত জিকু রাণী দাসের পরশী নামের ছয় বছরের একটি কন্যা শিশু রয়েছে। পরকীয়া প্রেমের সম্পর্কের কারণে দিপংকর প্রায় রাতে জিকু রাণীর বাসায় আসা যাওয়া করত। এলাকাবাসী বারবার ওই বাসায় আসতে দিপংকরকে নিষেধ করলেও তিনি তা শুনেননি। জিকু রাণী দাস চরফ্যাসনে তার স্বামীর বাড়িতে না থেকে তজুমদ্দিনে বাবার বাড়িতেই থাকতেন। গতকাল ১৮ মে বৃহস্পতি বার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে মোবাইল ফোনে কথা বলে জিকু রাণী দাস রান্ন ঘরের দরজা খুলে দিলে দিপংকর চন্দ্র পাল তার ঘরে ঢুকে পড়েন। একপর্যায়ে এলাকাবসী বিষয়টি টের পেয়ে ঘরের চারপাশ ঘিরে ফেলে ডাক-চিৎকার দেয়। এ সময় দিপংকর ঘরের দরজা খুলে পালানোর চেষ্টা করলেও এলাকাবাসীর হাতে ধরা পড়ে যান। তখন জিকু রাণীর বাবা-মা ঘরের সামনের খাটে ঘুমিয়ে ছিলেন। পরে দিপংকরের বাবাসহ এলাকার আরো লোকজনের সামনে দিপংকরকে মারপিট করলেই রাত ৩টার সময় জিকু রাণী দাস ঘরের মধ্য থেকে তার মাকে বের করে দেয় এবং ঘরের ভিতর থেকে দরজা বন্ধ করে রুমে ফ্যানের সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্নহত্যা করে। পরে তার বাবা-মার চিৎকারে লোকজন এসে দরজা ভেঙ্গে লাশ নামায়। সকাল বেলায় দিপংকরকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করলে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসে আর লাশের সুরতহাল রিপোর্ট করে ময়না তদন্তের জন্য ভোলা মর্গে প্রেরণ করেন।নিহত জিকু রাণী দাসের পিতা উমেশ চন্দ্র দাস সাংবাদিকদের জানান, জিকুর সাথে সম্পর্কের সুবাদে দিপংকর বিভিন্ন সময় তার কাছ থেকে প্রায় ৫ লক্ষ টাকা ধার নেয়।এ বিষয়ে জানতে চাইলে তজুমদ্দিন থানার অফিসার ইনচার্জ একেএম শাহিন মন্ডল জানান, এঘটনায় তজুমদ্দিন থানায় একটি মামলা প্রকৃয়াধীন রয়েছে।আসামী একজন গ্রেপ্তার রয়েছে ও নিহতের ময়না তদন্তের জন্য লাশ ভোলা মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

Leave a Reply

Top