ব্যাক্তি কেন্দ্রেীক রাজনীতির কারনে অনেক নেতাকর্মী মিথ্যা অপপ্রচারের শিকার। – Live News BD, The Most Read Bangla Newspaper, Brings You Latest Bangla News Online. Get Breaking News From The Most Reliable Bangladesh Newspaper; livenewsbd.co
You are here
Home > সারা বাংলা > জেলার খবর > ব্যাক্তি কেন্দ্রেীক রাজনীতির কারনে অনেক নেতাকর্মী মিথ্যা অপপ্রচারের শিকার।

ব্যাক্তি কেন্দ্রেীক রাজনীতির কারনে অনেক নেতাকর্মী মিথ্যা অপপ্রচারের শিকার।

পগর মাহমুদ সাগর : 

ঐতিহ্যবাহী একটি জেলা গাজীপুর জেলা।মুক্তিযুদ্ধের সুঁতিকাগাঁথা এই জেলা। ১৯৭১সালে ১৯শে মার্চ প্রথম সশস্ত্রযুদ্ধ হয়েছিল জয়দেবপুর।৭১ সালে১৯শে মার্চের পর সারা বাংলায় শ্লোগান উঠেছিল জয়দেবপুর এর পথ ধর বাংলাদেশ স্বাধীন কর।রাজনৈতিক সচেতন গাজীপুরবাসী।বিভিন্ন সময় ব্যাক্তি কেন্দ্রীক রাজনীতি আর ব্যাক্তির স্বার্থে পেশীশক্তির ব্যবহার কারনে রাজনৈতিক মাঠে গ্রুপিং বেশি।অনেক সময় নেতার ব্যাক্তি স্বার্থ উদ্ধার করতে গিয়ে কর্মীদের মামলায় মামলায় জর্জরিত হতে হয়। নেতারা সবসময় ব্যবসা বানিজ্য অর্থবিওে এগিয়ে থাকে।কয়েক বছর আগে মৌাচাক ইউনিয়নে নিটোল মর্টরস এর পরিত্যক্ত মালের ব্যবসা নিয়ে সংঘর্ষে  স্থানীয় এক ব্যবসায়ী সেলিম নিহত হয়।ঘটনাস্থল থেকে মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি এরশাদ এক সহযোগী সহ গ্রেফতার হয়। ১৯ জন নেতাকর্মীর নামে সেলিম হত্যা মামলা দায়ের হয়।মূলক ছাত্রলীগের সভাপতি নিজে ব্যবসা করার জন্য নিটোল মটোর্স এ যায় ও এই অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনাটি ঘটে।ওই ঘটনার ১ মাস পরে থেকেই বাদীর যোগসাজশে এই নিটোল মটোর্স থেকে প্রত্যেক মাসে ৪০ হাজার টাকা করে পায়।আর যারা মামলা খেল জেল খাটলো তারা শুধুই মিথ্যা আশা নিয়ে ঘুরতেই থাকে।কোনাবাড়ী এলাকায় ঠিক একি কাঁয়দায় তমিজউদ্দীন ও আরো কয়েকটি ফ্যাক্টরি দখল করে ব্যবসা করছে এরশাদ একাই।অথচ ফ্যাক্টরি নেওয়ার আগে মালিক পক্ষকে এরশাদ তার কর্মীদের কথা বলে ব্যবসা বাগিয়ে নেয়।আর যদি কেউ তার ব্যাক্তিকেন্দ্রীক বলয় থেকে বের হয়ে স্বাধীনভাবে রাজনীতি করতে যায় তখন শুরু হয় তার অনুসারীদের বিভিন্ন নির্যাতন মিথ্যা প্রচারনা।একে একে অনেকেই এরশাদ এর সঙ্গ ত্যাগ করে স্বাধীনভাবে রাজনীতি শুরু করে।কিন্তু যেই ব্যাক্তি বলয় এর বাহিয়ে যায় তাকে এরশাদ এর অনুসারীদের নির্যাতন সহ্য করতে হয়।সবশেষ বীরমুক্তিযুদ্ধার সন্তান সাইফুল্লাহ শাওন যখন বলয় বাহিরে গিয়ে চলতে চায় শুরু হয় শাওনের উপর বিভিন্ন ধরনের জুলুম নির্যাতন।তারসাথে আছে এরশাদ এর টোকাই বাহিনীর  সামাজিক মাধ্যমে ব্যাঙ্গাত্বক পোষ্ট।শুধু এগুলো করেই খান্ত হন না এরশাদ এর অনুসারীরা মিথ্যা রসালো গল্প তারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে আর কয়েকজন আজেবাজে কমেন্ট করে। কাজী আজিমউদ্দিন কলেজের সভাপতি মেহেদী হাসান নাহিদ দীর্ঘসময় এরশাদের সাথে রাজনীতি করার পরও শুধু এরশাদ এর সেচ্ছাচারিতার কারনে এরশাদের রাজনৈতিক সঙ্গ ত্যাগ করেন।প্রতিবেদক কথা বলেন জয়দেবপুর থানা আওয়ামী সেচ্ছাসেবকলীগের ভবিষ্যৎ কান্ডারী সাইফুল্লাহ শাওনের সাথে শাওন বলেন, সামনে জাতীয় সংসদ নির্বাচন এই নির্বাচনকে প্রবাহিত করতে মুজিব আর্দশের সৈনিকদের নামে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি মহল জামায়াত বিএনপির এজেন্ডা বাস্তবায়নে এই মিথ্যা ভিওিহিন রসালো গল্প প্রচার করছে।যেন আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন থেকে মুজিব আর্দশের সৈনিকদের দূরে রাখা যায়। যখন কোন একজন নেতা বুঝতে পেরে গেছে আর আমার শাওনকে দিয়ে তার ব্যাক্তিস্বার্থ উদ্ধার হবে না তখনি তার অনুসারীদের দিয়ে প্রচারসেলের মাধ্যমে মিথ্যা প্রচারনা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার করেই যাচ্ছে।                                 

3 thoughts on “ব্যাক্তি কেন্দ্রেীক রাজনীতির কারনে অনেক নেতাকর্মী মিথ্যা অপপ্রচারের শিকার।

Leave a Reply

Top