You are here
Home > সারা বাংলা > জেলার খবর > বেনাপোল দুর্গাপুরের রাস্তা বেহাল দশা, নির্বিকার পৌরসভা কর্তৃপক্ষ

বেনাপোল দুর্গাপুরের রাস্তা বেহাল দশা, নির্বিকার পৌরসভা কর্তৃপক্ষ


বেনাপোল(যশোর)প্রতিনিধিঃ

বেনাপোল পৌরসভার আওতাভুক্ত ২নং ওয়ার্ড দুর্গাপুর গ্রামের বেনাপোল পৌরসভার পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি এনামুল হক মুকুলের বাস ভবনের রাস্তাটি বেহাল দশায় পতিত হয়েছে। ফলে রাস্তাটিতে সাধারণ মানুষের পায়ে হেঁটে চলাচল করাই দুষ্কর হয়ে পড়েছে। ছোট ছোট যানবাহন চলাচলে জনদুর্ভোগ চরমে পৌঁছেছে। এই রাস্তাটি দিয়ে প্রায় প্রতিদিন ২ থেকে ৩ হাজার মানুষের যাতায়াত, এই রাস্তার পাশে রয়েছে বন্দর প্রি-ক্যাডেট নামে ১টি শিক্ষা প্রতিষ্টান। অবহেলা ও অযত্নে পড়ে থাকা রাস্তাটির শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত প্রায় ২০০-৩০০  পরিবারে বসবাস। বার বার বেনাপোল পৌরসভায় ধর্ণা দিয়েও লাভ হচ্ছে না, জনদূর্ভোগের কষ্টের কথা পৌরসভা কর্তৃপক্ষ গুরুত্ব দিচ্ছে না বলে এলাকাবাসীর অভিযোগ। 

শুষ্ক মৌসুমে ধুলাবালি আর বর্ষা মৌসুমে কাদাপানিতে নোংরা হচ্ছে পথচারিদের পোশাক পরিচ্ছদ। আর খানা খন্দকের সাথে পাল্লা দিতে গিয়ে অহরহ বিকল হয়ে পড়ছে ছোট ছোট গণপরিবহন গুলো। সুস্থ মানুষেরা হয়ে পড়ছে অসুস্থ আর অসুস্থদের অবস্থা তো বলাই বাহুল্য। গর্ভবতী নারীদের ডাক্তারী চেকআপে যাতায়াতে যানবাহনের ঝাঁকুনিতে কষ্ট সীমাহীন পর্যায়ে ।


খানা-খন্দে রূপ নিয়েছে। ছোট ছোট ইঞ্জিনচালিত বাহনগুলি প্রায় দুর্ঘটনায় পতিত হয়। দুর্গাপুরের রাস্তা সংস্কার করা না হলে বাহন চালানো বন্ধ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সে ক্ষেত্রে প্রায় ছোট ছোট বাহনের  চালক পরিবারগুলো বেকার হয়ে পড়বে।
বেনাপোল পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের দুর্গাপুর এলাকার বাসিন্দা মনি বলেন, দুর্ঘটনার কবলে পরে হাত-পা ভেঙ্গে হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে গেছে এই এলাকার অনেক মানুষ। দিনে দিনে রাস্তাটি আরও খারাপের দিকে যাচ্ছে।


গোটা রাস্তায় পিচের আস্তরণ উঠানোর কারণে অংসখ্য খানাখন্দ তৈরি হয়েছে। সাম্প্রতিক বর্ষণে ওই সব গর্তে জল জমে প্রায় ডোবায় পরিণত হয়েছে, যাতায়াত করাই দুষ্কর, রাস্তাটি সংস্কারের জন্য পৌরসভা  কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করেও লাভ হয়নি৷
স্কুল পড়ুয়া শিক্ষার্থী সজিব বলেন আমাদের চলাচলের একমাত্র এই রাস্তাটি বেহাল দশায় নাভিশ্বাস উঠেছে জনজীবন। ভাঙ্গাচোরা আর গর্তে ভরা রাস্তায় চলাচল করে অতিষ্ঠ এই রাস্তায় চলাচল কারী,এলাকাবাসী। ধুলোবালিতে অসুস্থ হওয়ার পাশাপাশি মনস্তাত্বিকভাবেও দুর্বল হয়ে পড়ছেন সাধারণ মানুষ৷ আমাদের কথা চিন্তা করে মেয়র যেন রাস্তাটি দ্রুত মেরামত করে দেন সাংবাদিকদের মাধ্যমে সেই দাবী জানায়।


বেনাপোল পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি এনামুল হক মুকুল বলেন রাস্তাটি দ্রুত সংস্কার করা না হলে জনসাধারণের চলাচল অযোগ্য হয়ে পড়বে।স্কুল-কলেজ পড়ুয়া শিক্ষীর্থী, এলাকাবাসীর, রোগীদের, অফিসগামীদের যাতায়াতের সময় সীমাহীন দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

এনামুল হক মুকুল অভিযোগ করেন আমি বেনাপোল পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি ও এমপি আফিল পন্থি হওয়ায় ইচ্ছা করে রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের উদ্যেশে মেয়র লিটন এই রাস্তাটি দীর্ঘদন ধরে সংস্কারের নামে খুড়ে রেখে দিয়েছে,যাতে করে আমাদের চলাচলে অসুবিধা হয়। বার বার স্থানীয় কমিশনার মন্টুকে বলার পরেও রাস্তাটি সংস্কার করে নাই।


বেনাপোল পৌরসভার কাউন্সিলর শাহাবুদ্দিন মন্টু বলেন দূর্গাপুরের ঐ রাস্তাটি বর্তমানে খারাপ সে বিষয়ে আমি অবগত আছি,ঈদের পর লেবার সংকটের কারনে রাস্তা সংস্কার করতে সমস্যা হচ্ছে, খুবই দ্রুত লেবার সমস্যা সমাধান করে রাস্তাটি চলাচলের উপযোগী করা হবে।

Leave a Reply

Top