You are here
Home > সারা বাংলা > জেলার খবর > বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক মনি সরকারকে নিয়ে ষড়যন্ত্র করছে একটি চক্র

বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক মনি সরকারকে নিয়ে ষড়যন্ত্র করছে একটি চক্র

টঙ্গী প্রতিনিধি :

টঙ্গী থানা স্বেচ্ছাসেকলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম রুহুল আমিন মনি সরকার বলেছে, আমার বিরুদ্ধে যে সকল অভিযোগ গুলো আনা হয়েছে তার একটা প্রমাণ করতে পারলে আমি স্বেচ্ছায় রাজনীতি ছেড়ে দেব। তাছাড়া তার বিরুদ্ধে মিথ্যা কোনো অভিযোগপ্রচার না করার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ জানিয়েছেন এস এম রুহুল আমিন মনি সরকার। তিনি তার ফেইসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, গত ২৬ নভেম্বর রোজ মঙ্গলবার একটি জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় আমার নামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। প্রকাশিত ঐ সংবাদে চাদাবাজি,টেন্ডারবাজি,আওয়ামীলীগ অফিসে অগ্নিসংযোগ ও দল পরিবর্তন করে বিত্তবান হয়ে একাধিক বহুতল ভবনের একক মালিক হয়েছি,উক্ত খবরের বিষয়গুলি সম্পূর্ন ভাবে ভিক্তিহীন। কতিপয় ব্যক্তি গন আমার রাজনৈতিক কর্মকান্ডে প্রতিহিংসা করে ষড়যন্ত্র মূলক মিথ্যা বানোয়াট তথ্য দিয়ে সংবাদটি পরিবেশন করিয়ে আমার রাজনৈতিক, পারিবারিক ও সামাজিকভাবে সুনাম ক্ষুন্ন করার পায়তারা করছে। আমি এর তীব্র্র নিন্দা ও প্রতিবাদ করছি। আমার বাবা মরহুম শাহাব উদ্দিন সরকার স্বাধীনতার পর থেকেই আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন ও আমার ছোট ভাই মরহুম এস এম আমজাদ হোসেন শিপু সরকার মৃত্যুর আগমুহূর্ত পর্যন্ত বাংলাদেশ ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন। যাহার প্রমান যুদ্ধ পরবর্তী সময়ের সাবেক সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী মোজাম্মেল হক সাহেব ও বর্তমান গাজীপুর মহানগর আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী ইলিয়াস আহমেদ এর নিকট যে কেহ জিজ্ঞাসা করিলে সত্যতা জানতে পারবেন। টঙ্গী বাজার সরকার পরিবারের ৯৯% সদস্যই পূর্বে ও আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন ও বর্তমানে ও জড়িত আছেন। আমি কখনোই টঙ্গী বাজারের ইজারার সাথে জড়িত ছিলাম না। টঙ্গী বাজার বাসস্ট্যান্ডে আমাদের যেই পেট্রোল পাম্প আছে উহা যুদ্ধ পরবর্তী সময় হতে মেঘনা পেট্রোলিয়াম লিমিটেড এর নামে লিজ কর্তৃক সম্পত্তি। উক্ত সম্পত্তিটি ও আমাদের পারিবারিক যৌথ ব্যবসা। আমার বাবার মৃত্যুর পরে উক্ত প্রতিষ্ঠানটি আমার বড় ভাই পরিচালনা করিতেন। গত এক বছর আগে তিনি মারা যাবার পর হতে পেট্রোল পাম্পটি বন্ধ ছিল যা বর্তমানে সংস্কার করিয়া পুনরায় চালু করার পরিকল্পনা করিয়াছি যা বর্তমানে সংস্কার কাজ চলিতেছে, তাই ১২ কাঠা জমি দখলের বিষয়টি ও ভিক্তিহীন। এছাড়া মহাসড়কের পাশে ১৫০ টি দোকান বসানোর খবরটি মিথ্যা বানোয়াট ও ষড়যন্ত্রমূলক। টঙ্গী বাজারে যে সকল মার্কেট ও বিল্ডিংয়ের নাম উল্লেখ করা হয়েছে তার সব গুলির মালিক পিতৃসুত্রে আমরা পাচ ভাই। ও আমি নিজে উক্ত সম্পদের পাচ অংশের এক অংশের মালিক। টঙ্গী বাজারের সরকার বাড়ি আমাদের জন্মের পূর্ব হইতে একটি ঐতিহ্যবাহী বংশ হিসেবে পরিচিত। আমার দাদা ছিলেন মরহুম আমজাদ আলী সরকার। তাহার সম্পদ ও ঐতিহ্য অত্র এলাকার সকলের জানা। তাই আওয়ামীলীগে যোগদানের পর বিত্তবান হওয়ার এই কথাটি সঠিক নয়। আমি ১৯৮০ সাল হতে ভাওয়াল বীর বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টারের ছাত্র হিসেবে নোওয়াগা এম এ মজিদ মিয়া স্কুলে স্যারের সান্নিধ্যে থাকার সুযোগ পাই ও স্যারের সাথে বিভিন্ন রাজনৈতিক কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ করি। পরবর্তী সময়ে আমি দীর্ঘ অনেক বছর ৫৭ নং ওয়ার্ড আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি হিসেবে সুনামের সহিত দায়িত্ব পালন করি। যার ধারাবাহিকতায় ও আমার রাজনৈতিক কর্মকান্ডে সন্তুষ্ট হয়ে আমাদের মাননীয় যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল এম পি মহোদয় ও স্বেচ্ছাসেবকলীগের নেতৃবৃন্দ আমাকে টঙ্গী থানা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব প্রদান করেন যা আমি সুনামের সহিত অদ্যাবধি সততা ও নিষ্ঠার সাথে পালন করে আসছি। আমি রাজনীতি করি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সোনার বাংলা গড়ার একজন কর্মী হিসেবে। আমি রাজনীতি করি প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ শেখ হাসিনার সততা দেখে ও ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার কর্মী হিসেবে। আমি রাজনীতি করি বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার এম পির আদর্শের গড়া কারিগড় হিসেবে। আমি রাজনীতি করি মাননীয় যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল মহোদয়ের আদর্শ নিয়ে তাই চাদাবাজি, টেন্ডারবাজি আমার পক্ষে সম্ভব না। তাই সকলের কাছে আমি নিবেদন করছি যে, আমার রাজনৈতিক কর্মকান্ড কারো কাছে পছন্দ না হলে, ও আমার বিরুদ্ধে উক্ত সংবাদের যে কোন অভিযোগ এর প্রমান থাকিলে, প্রমান সহ আমার নেতা আলহাজ্ব মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল এম পি মহোদয়ের নিকট পেশ করিবেন। সঠিক প্রমান উপস্থাপন করতে পারলে আমি আমার দলের স্বার্থে রাজনীতি থেকে অব্যাহতি নিব। তবুও মিথ্যা বানোয়াট ও ষড়যন্ত্র মূলক সংবাদ দিয়ে আওয়ামীলীগ সরকারের উন্নয়নের ও আমার নেতা আলহাজ্ব মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল মহোদয়ের সম্মান ও ভাবমূর্তি নষ্ট করার চেষ্টা করবেন না।

Leave a Reply

Top