You are here
Home > প্রচ্ছদ > প্রধান বিচারপতির ছুটি ও সফর নিয়ে রাজনীতি না করার আহবান আনিসুল হকের

প্রধান বিচারপতির ছুটি ও সফর নিয়ে রাজনীতি না করার আহবান আনিসুল হকের

স্টাফ রিপোর্টার : প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার ছুটি নেয়া, তা বাড়ানো এবং বিদেশ যাওয়ার ক্ষেত্রে প্রধান বিচারপতির চাওয়া অনুযায়ী সরকারের প্রজ্ঞাপন হয়েছে। এ নিয়ে রাজনীতি না করার আহ্বান জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। তিনি বলেন, প্রধান বিচারপতি ব্যক্তিগত কারণে ছুটিতে গেছেন, ব্যক্তিগত প্রয়োজনে তিনি বিদেশ সফর করবেন, এর মধ্যে কোনো বিতর্ক নেই। বিচারপতি সিনহা শুক্রবার অস্ট্রেলিয়াসহ কয়েকটি দেশে ভ্রমণে যাচ্ছেন এবং আগামী ১০ নভেম্বর পর্যন্ত দেশের বাইরে থাকবেন বলেও জানান তিনি।

আজ বৃহস্পতিবার হোটেল সোনারগাঁওয়ে আইন মন্ত্রণালয়ের এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। লেজিসলেটিভ ইম্প্যাক্ট অ্যাসেসমেন্ট (এলআইএ) এবং ইন্টারন্যাশনাল ফিন্যান্স করপোরেশনের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর উপলক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে মন্ত্রণালয়ের লেজিসলেটিভ ও সংসদবিষয়ক বিভাগ। আইনমন্ত্রী বলেন, প্রধান বিচারপতির এক মাসের ছুটিতে আছেন। এরই মধ্যে আবার অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, আমেরিকা ও ইউনাইটেড কিংডম সফরে যেতে চান। ১৩ অক্টোবর (আজ) তিনি দেশ ত্যাগ করতে চান এবং ১০ নভেম্বর দেশে ফিরে আসবেন বলে রাষ্ট্রপতিকে চিঠিতে উল্লেখ করেছেন। বিএনপিকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, এসব নিয়ে আন্দোলন করার চেষ্টা করবেন না, এগুলো আন্দোলনের কোনো খোরাক না এবং এ ব্যাপারে কোনো আন্দোলন হবে না।

প্রধান বিচারপতি ইস্যুতে কূটনৈতিকদের কাছে বিএনপির নালিশ সম্পর্কে মন্তব্য করতে বললে আনিসুল হক বলেন, তাদের হাতে আন্দোলনের আর কোনো ইস্যু নেই। এখন তারা খড়-কুটা আঁকড়ে ধরে আন্দোলনের চেষ্টা করছেন। কিন্তু আমরা বলব, আদালতের বিষয় নিয়ে যেন তারা কোনো রাজনীতি না করেন। আইনমন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে সমন জারি করলে তিনি আদালতে হাজির হন না। ওয়ারেন্ট ইস্যু করলে আদালতে গিয়ে তার আইনজীবীরা বিচারককে গালাগাল করেন। আসলে আদালতের প্রতি তাদের কোনো শ্রদ্ধাবোধ নেই।

ষোড়শ সংশোধনী রায় ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে রিভিউ
আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, ‘ষোড়শ সংশোধনী নিয়ে আপিলের রায়ের কপি পাওয়া গেছে। আগামী ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে পুনর্বিবেচনার (রিভিউ) পিটিশন দাখিল করা হবে। মন্ত্রী বলেন যে গত পরশু রায়ের কপি হাতে এসেছে। বিষয়টি নিয়ে পর্যালোচনা করা হচ্ছে। গত ৩ জুলাই প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন সাত সদস্যের আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চ হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষের করা আপিল খারিজ করে সর্বসম্মতিক্রমে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করে রায় দেন। গত ১ আগস্ট পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ করা হয়।

Leave a Reply

Top