You are here
Home > নারী ও শিশু > প্রতারক বরের গোপন ভিডিও নিয়ে আতঙ্কে নববধূ

প্রতারক বরের গোপন ভিডিও নিয়ে আতঙ্কে নববধূ

ক্রাইম রিপোর্টারঃ টঙ্গী মডেল থানায় আটকে রেখে ডিভোর্সে বাধ্য করা ওই নববধূ এখনো কোনো বিচার পাননি। অপর দিকে প্রতারক বরের গোপন ভিডিও নিয়ে আতঙ্কে ভুগছেন তিনি। শারীরিক সম্পর্কের ওই গোপন ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়ার হুমকি দেয়া হচ্ছে।
অভিযোগকারী মনি আক্তার জানান, তিনি ব্লাড ক্যান্সারের রোগী। কর্মচারীরা তার ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান দেখাশোনা করেন। তার এই দুর্বলতার সুযোগে একটি সঙ্ঘবদ্ধ প্রতারকচক্র তার অর্থসম্পদ আত্মসাতের উদ্দেশ্যে তাকে জোরপূর্বক এক প্রতারকের সাথে বিবাহে বাধ্য করে। এ ঘটনায় টঙ্গী মডেল থানায় তিনি অভিযোগ দিলেও পুলিশ কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। এতে স্বামীর অধিকার বলে ওই প্রতারক তার ওপর শাসন-শোষণের সুযোগ পায় এবং তার অসুস্থতার অজুহাতে তার ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বা সম্পদের নিয়ন্ত্রণ নেয়ার চেষ্টা করে। এ ব্যাপারে সব চেষ্টা ব্যর্থ হওয়ায় অবশেষে বিবাহের দায় থেকে রা পেতে টঙ্গী মডেল থানার অসৎ পুলিশ কর্মকর্তাদের অনৈতিক সহযোগিতা নেয় প্রতারক চক্রটি। বিবাহের মাত্র ১০ দিনের মাথায় মনিকে থানায় ধরে নিয়ে সেখানে জোরপূর্বক খোলা তালাকে বাধ্য করা হয়। এ ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার নয়া দিগন্তে সংবাদ প্রকাশ হলে নড়েচড়ে বসেন পুলিশ কর্মকর্তারা। টঙ্গী মডেল থানার ওসি ফিরোজ তালুকদার বলেন, ঘটনাটি আগে আমাকে জানানো হয়নি। ডিভোর্সের দিন আমি থানায় ছিলাম না। এখন ভিকটিমের লিখিত অভিযোগ পেয়েছি এবং ভিকটিমের (মনি আক্তারের) মুখ থেকে সরাসরি ঘটনার বর্ণনা শুনেছি। ঘটনাটি অনেক বড়। পৃথক তিন থানা এলাকায় ঘটনা ঘটেছে। পৃথক তিনটি মামলা হবে। আমার থানা এলাকায় সংঘটিত অপরাধের ঘটনায় আমি মামলা নেবো।

Leave a Reply

Top