You are here
Home > আন্তর্জাতিক > পুতিনের পিঠ চাপড়ে দিলেন ট্রাম্প

পুতিনের পিঠ চাপড়ে দিলেন ট্রাম্প

অনলাইন ডেস্ক :

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের পিঠ চাপড়ে দিলেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। প্রথমবারের মুখোমুখি সাক্ষাতে ‘ঐতিহাসিক’ করমর্দনও করেছেন তাঁরা। তাঁদের সম্পর্ক নিয়ে কয়েক মাস ধরেই কানাঘুষা চলছিল। গত বছরের নভেম্বরে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর জার্মানির হামবুর্গে শুরু হওয়া জি-২০ (গ্রুপ অব ২০) সম্মেলনে প্রথমবারের মতো মুখোমুখি সাক্ষাৎ হলো তাঁদের।

জার্মান ক্যাবিনেটের ফেসবুকে পোস্ট করার আগে সাংবাদিকেরা ওই দুই নেতার করমর্দনের বিষয়টি ধারণ করেন। টেলিগ্রাফের একটি ভিডিও চিত্রে দেখা যায়, একটি টেবিলের চারপাশে কর্মকর্তারা দাঁড়িয়ে। ট্রাম্প পুতিনের ডান হাত ধরেন এবং হাতের নিচে কয়েকবার চাপড়ে দেন। এ ছাড়া কয়েকবার পুতিনের পিঠও চাপড়ে দিতে দেখা গেছে তাঁকে।

যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার নেতারা বলছেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সময় রাশিয়ার হস্তক্ষেপের অভিযোগ ওঠায় যে সমস্যা তৈরি হয়েছে, সে ক্ষতি পোষাতে সম্পর্ক জোড়া লাগাতে চান তাঁরা। সভা টেবিলের পাশে ট্রাম্প ও পুতিনকে হাসিমুখে কুশল বিনিময় করতে দেখা যায়। ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্ট জ্যঁ-ক্লদ জাংকার সেখানে উপস্থিত ছিলেন। এই সাক্ষাতের পর আবার দুই দেশের প্রেসিডেন্টের বিতর্কিত কিছু বিষয়ে আবার ঘণ্টা খানেকের জন্য আলোচনায় বসার কথা রয়েছে। এ আলোচনা অবশ্য জি-২০–এর নির্ধারিত আলোচনার বাইরে।
রাস্তায় ব্যাপক বিক্ষোভের মুখে দুই দিনের এ সম্মেলনে জলবায়ু ও বাণিজ্য বিষয় গুরুত্ব পাচ্ছে।
বিক্ষোভের মুখে ট্রাম্প–পত্নী ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া হোটেল ছেড়ে বেরোতে পারেননি।
পুলিশ আন্দোলনকারীদের ঠেকানোর চেষ্টা করছে। তাঁরা সম্মেলনস্থল থেকে অনেক দূরে ট্রাম্প ও পুতিনের অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করছেন। সম্মেলন শুরু হওয়ার আগে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়েছে। পুলিশ বলছে, এতে ৭৬ পুলিশ আহত হয়েছে। তিন পুলিশ কর্মকর্তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। কয়েকজন বিক্ষোভকারীও আহত হয়েছেন।

জি-২০ সম্মেলন হচ্ছে উন্নত ও উন্নয়নশীল ১৯টি দেশ এবং ইউরোপের সম্মেলন। সম্মেলনের শুরুর বক্তৃতায় জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল বলেন, ‘আমরা সবাই বিশ্বের বড় চ্যালেঞ্জগুলো সম্পর্কে জানি। সময় কম। ফলে আমরা যদি পেছনে না তাকিয়ে আপোস করে একসঙ্গে কাজ করতে পারি, তা হলে সমাধান পাওয়া যেতে পারে। তবে কিছু বিষয়ে আমাদের ভিন্নমত থাকতে পারে।’

Leave a Reply

Top