You are here
Home > খেলাধুলা > পাকিস্তান থামল ৩৭৬–এ

পাকিস্তান থামল ৩৭৬–এ

স্টাফ রিপোর্টারঃ খুব সহজে রান আসেনি। তবে ডমিনিকা টেস্টের দ্বিতীয় দিনে অলআউট হওয়ার আগে ৩৭৬ রান ঠিকই তুলেছে পাকিস্তান। দিনের শেষ বেলায় ব্যাটিংয়ে নেমে ওয়েস্ট ইন্ডিজের রান বিনা উইকেটে ১৪। জেসন হোল্ডার পেয়েছেন ৪ উইকেট, রোস্টন চেজ ৩ টি।
আজহার আলী পেয়েছেন ১৪ তম টেস্ট-সেঞ্চুরি। ৩৩৪ বল খেলে ১২৭ রান করেন তিনি। মিসবাহ তাঁর বিদায়ী টেস্টের উপলক্ষটা সাজিয়েছেন ১৪৮ বলে ৫৯ রান করে। অর্ধশতক পেয়েছেন সরফরাজ আহমেদও। তুলনায় তাঁর ইনিংসটা বেশ দ্রুত। ৭৩ বলে ৫১ করেন তিনি। বাবর আজমের ব্যাট থেকে আগেই এসেছিল ৫৫ রান।
এর আগে ২ উইকেটে ১৬৯ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরুর পর দ্রুতই ইউনিস খানের উইকেট হারায় পাকিস্তান। হোল্ডারের বলে এলবিডব্লু হন তিনি। রিভিউ নিয়েছিলেন, তবে বাঁচতে পারেননি।
মিসবাহ ব্যাটিংয়ে নেমে শুরু করেন ধীরলয়ের ব্যাটিং। প্রথম রানটি তিনি করেন ৫১ বল খেলে। তবে উইকেটে সেট হওয়ার পর রানের চাকার গতি বাড়িয়েছেন পাকিস্তানের অধিনায়ক।
আজহার মধ্যাহ্ন বিরতির আগেই তিন অঙ্কে পৌঁছান। তাঁর দীর্ঘ ইনিংসে ছিল ৮টি চার ও ২টি ছক্কা। আসাদ শফিক আউট হন ১৭ রানে।
তবে পাকিস্তানের ইনিংস থেমে যেতে পারত ৩০০ রানের আগেই। তৃতীয় সেশনের শুরুতেই পরপর দুই বলে জেসন হোল্ডারের বলে ফেরেন মোহাম্মদ আমির ও ইয়াসির শাহ। নবম উইকেটে মোহাম্মদ আব্বাসকে সঙ্গে নিয়ে ৪৫ রান যোগ করেন সরফরাজ। এতেই পাকিস্তানের রান তিনশ ছাড়িয়ে যায়। এই জুটিতে আব্বাসের অবদান অবশ্য মাত্র ৩ রান।
দিন শেষে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ব্যাট করেছে ১১ ওভার। বিনা উইকেটে দলের ১৪ রানে কার্লোস ব্রাফেটের অবদান ৫, কাইরন পাওয়েলের অবদান ৯।
দ্বিতীয় দিনের সংক্ষিপ্ত স্কোর
পাকিস্তান ১ম ইনিংস: ১৪৬.৩ ওভারে ৩৭৬ (আজহার ১২৭ , বাবর ৫৫, মিসবাহ ৫৯, সরফরাজ ৫১; চেজ ৪ / ১০৩, হোল্ডার ৩ / ৭১, বিশু ২ / ৬১)
ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১ম ইনিংস: ১১ ওভারে ১৪ / ০ (ব্রাফেট ৫ *, পাওয়েল ৯

Leave a Reply

Top