You are here
Home > খোলা আকাশ > পবিত্র রমজান মাসেও চলছে ঝুমুর ঝুমুর নাচ,উলঙ্গনৃত্য ও জুয়া!

পবিত্র রমজান মাসেও চলছে ঝুমুর ঝুমুর নাচ,উলঙ্গনৃত্য ও জুয়া!

গাজীপুর জেলা প্রতিনিধি :
পবিত্র রমজান মাসেও উলঙ্গনৃত্য আর জুয়া আসর বসিয়ে টাকা উপার্যন করছে কিছু মানুষ রুপি জানোয়ার। বেশ কিছু সাংবাদিককে পিটিয়ে পুরস্কার হিসেবে জুয়ার আসর চালাচ্ছেন জুয়ারী চক্ররা। প্রশাসনের দেয়া দুঃসাহস আর কতিপয় হলুদ সাংবাদিকের সংশ্লিষ্টতায় পবিত্র রমজান মাসেও চলছে ওই অবৈধ অশ্লীল অনুষ্ঠান।

স্থানীয়রা জানান, পুলিশ প্রশাসনের সহযোগিতায় কয়েক ব্যাক্তির নেতৃত্বে গাজীপুরের বিভিন্ন স্থানে কয়েক বছর ধরে জুয়া ও উলঙ্গ নৃত্বের আসর বসিয়ে ব্যবসা করে আসছেন। এসব নামধারী নর্তকীদের উলঙ্গ নৃত্য উপভোগ করতে ৮-১০ বৎসরের শিশু থেকে ৬০-৭০ বছরের বৃদ্ধরা ওজড়ো হচ্ছে একসাথে। উচ্চস্বরে ভিন্ন ধরনের বাংলা, হিন্দি ও ইংলিশ গানের সঙ্গে তাল মিলিয়ে একশ্রেণীর নামধারী নর্তকীরা উপস্থিত শত শত দর্শকের সামনে মেতে উঠে নাচের নামে শরীর থেকে কাপড় খুলে ফেলার প্রতিযোগিতায়। মেলা পরিচালনাকারীরা মনে করছে যে যত বেশি অশ্লীল নৃত্য প্রদর্শন করবে তাদের দর্শক তত বেশি হবে। সরেজমিনে মেলা ঘুরে আরো দেখা যায়, রাত বাড়ার সাথে সাথে চলচ্চিত্র নামধারী নৃত্যশিল্পীরা (নামমাত্র) অশ্লীল ভঙ্গিতে নাচতে নাচতে দর্শকের কাতারে এসে, শরীর ধরে-বসে যৌন সুরসুরিতে ভরে দিচ্ছে আর কিছু দর্শক নর্তকীদের গায়ে কাড়ি কাড়ি টাকা ছিটিয়ে রাতভরেউপভোগ করছে। যা সামাজিক অবক্ষয় তৈরী করছে অনায়াসে। মাদকের মতোই নেশার ঢলে পড়ে প্রতিদিন একশ্রেনীর দর্শক হুমড়ি খেয়ে পড়ছে প্যান্ডেলের ভিতরে। এতে নৈতিক অধঃপতনে পড়েছে কিশোর ও যুব-সমাজ। অবৈধ হাউজি ও জুয়ার আসরে নিঃশেষ হচ্ছে সাধারণ মানুষ। ঘটছে আইন- শৃংখলা পরিস্থিতির চরম অবনতি। পাশাপাশি বাড়ছে চুরি ও ডাকাতির মতো বড় বড় ঘটনা।

অনুসন্ধানে জানা যায়, গাজীপুররে মাওনা, হোতপাড়া, রাজেন্দ্রপুর ও বাঘেরবাজার এলাকায় বছরব্যাপীই চলছে এই জুয়া ও উলঙ্গ নৃত্য । পবিত্র রমজানকে তোয়াক্কা না করে সিয়াম সাধনার মাস রমজানকে বৃদ্ধাঙ্গুল দেখিয়ে প্রশাসনের নাকের ডগায় বর্তমানে হোতাপাড়া এলাকায় চলছে উলঙ্গ নৃত্য ও জুয়া। এর আগে কয়েক বার বাঘেরবাজার এলাকায় জুয়ার সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে বেশ কয়েকজন সাংবাদিককে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করেছেন জুয়ারীরা। এ সময় পুলিশ দেখেও না দেখার ভান করে। এরপর একাধিকবার জুয়ার আসরের সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে সাংবাদিক আহত ও গ্রেফতার হয়। সাংবাদিক আহতের ঘটনায় মামলা হলেও পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করেনি। বরং আসামীরা বিরদর্পে জুয়ার আসর চালিয়ে গেছেন। বর্তমানেও এর কোনো ব্যতিক্রম নেই এখনো চলছে।

জানা গেছে, (কিছু দিন বন্ধ থাকার পর) ৯দিন ধরে আবার জুয়ার আসর শুরুহয়েছে। আসরে উলঙ্গ নৃত্যতো থাকছেই। এইসব আসরের মালিক জনৈক রানা,আরিফসহ আরো অনেকেই রয়েছে। গাজীপুরে জুয়ার আসর করেন সাংবাদিক পিটানোর ভয় দেখিয়ে। তারা প্রকাশ্যে সাংবাদিক পিটানোর হুমকি দিয়ে জুয়ার আসর চালাচ্ছেন। এ প্রসঙ্গে স্থানীয় হোতাপাড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (আইসি) নাজমুল হক বলেন, আমি জানিনা। স্যার জানেন।

Leave a Reply

Top