You are here
Home > জীবন-যাপন > নিয়মিত হাঁটার উপকারীতা অনেক

নিয়মিত হাঁটার উপকারীতা অনেক

বিশেষ প্রতিনিধি :

সকালে হাঁটা স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারি। সকালে নিয়মিত হাঁটলে অনেক উপকার পাওয়া যায়। দৈনন্দিন শারীরিক কার্যক্রম না হওয়ার ফলে শরীরে বাসা বাঁধছে বিভিন্ন রোগ। ডায়বেটিস, উচ্চরক্তচাপ, আথ্র্রাইটিস, ওবেসিটি বা স্থুলতা, মাংস পেশির শক্তি কমে যাওয়া, অষ্ঠিওপোরোসিস বা হাড়ের ভঙ্গুরতা ইত্যাদি।

আসুন জেনে নেই সকালে হাঁটা যেসব রোগের ঝুঁকি কমায়।

শরীরের অতিরিক্ত চর্বি কমে : নিয়মিত হাঁটলে শরীরের অতিরিক্ত চর্বি কমে যায়। ভালো কোলেস্টেরল বা এইচডিএল বাড়ে, মন্দ কোলেস্টেরল বা এলডিএল কমে যায়।

ওজন কমিয়ে ক্যানসারের ঝুঁকি কমায় : নিয়মিত হাঁটলে ওজন কমার কারণে স্তন ক্যানসারসহ অন্য অনেক ক্যানসারের ঝুঁকি কমে।

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ : ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণেও হাঁটা বেশ কার্যকর। হাঁটলে শরীরের পেশিতে ইনসুলিনের কার্যকারিতা বাড়ে। ফলে রক্তের গ্লুকোজ কমে।

উচ্চ রক্তচাপ, হৃদরোগ ও স্ট্রোকের ঝুঁকি কমে : উচ্চ রক্তচাপ, হৃদরোগ ও স্ট্রোকের ঝুঁকি কমাতে প্রতিদিন সকালে হাঁটুন। ব্লক থাকলেও নিয়মিত হাঁটার কারণে আশপাশের ছোট রক্তনালিতে রক্ত সরবরাহ বাড়ে। ফলে হৃদরোগের ঝুঁকি কমে। কমে স্ট্রোকে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিও।

হৃদযন্ত্র ও ফুসফুসের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি করে : হাঁটার সময় হৃৎস্পন্দন আর শ্বাস প্রশ্বাসের গতি বাড়ে। ফলে হৃদযন্ত্র ও ফুসফুসে রক্ত সরবরাহ বাড়ে।

হাড় ও গিঁটের জন্য ভালো : যারা নিয়মিত হাঁটেন, তাদের অস্টিওপোরোসিস কম হয়। হাড়ের জোড়া বা গিঁট সুস্থ থাকে। হাঁটার উপকার পেতে সপ্তাহে অন্তত পাঁচ দিন কমপক্ষে ৩০ মিনিট হাঁটুন।

Leave a Reply

Top