থানায় দাঁড়িয়েই পুলিশ অফিসারকে চড়… – Live News BD, The Most Read Bangla Newspaper, Brings You Latest Bangla News Online. Get Breaking News From The Most Reliable Bangladesh Newspaper; livenewsbd.co
You are here
Home > আন্তর্জাতিক > থানায় দাঁড়িয়েই পুলিশ অফিসারকে চড়…

থানায় দাঁড়িয়েই পুলিশ অফিসারকে চড়…

স্টাফ রিপোর্টারঃ পুলিশ অফিসারকে মারলেন চড়। আর তার অধস্তন এক পুলিশকর্মীকে জামার কলার ধরে ধাক্কা মারলেন। তাও আবার থানার মধ্যেই। এমনই কাণ্ড ঘটিয়ে আলোচনায় ভারতের উত্তরপ্রদেশের বিধান পরিষদের সদস্য, সমাজবাদী পার্টির নেতা রমেশ যাদবের ভাইপো মোহিত। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

থানায় ঢোকার পর মোহিত সোজা চলে যান ওই পুলিশ অফিসারের ঘরে। এরপর সমাজবাদী পার্টি নেতার এই ভাইপো হিন্দিতে বলতে থাকেন, ‘‘জানেন, আমার নাম মোহিত যাদব? আমি কে, জানেন? সমাজবাদী পার্টির নেতা রমেশ যাদবের ভাইপো। আপনার সাহস তো কম নয়!’’ বলেই ঠাস ঠাস করে চড় মারেন তিনি পুলিশ অফিসারটিকে। সঙ্গে ফুলঝুরির মতো তাঁর মুখ থেকে বেরিয়ে আসতে থাকে অশ্রাব্য গালিগালাজ। করতে থাকেন কুৎসিত অঙ্গভঙ্গিও। ‘দেখে নেব’ বলে হুমকিও দিতে থাকেন তিনি। গোটা ঘটনাটাই থানার সিসিটিভি ফুটেজে রয়েছে।

মোহিতের চাচা রমেশ যাদব সমাজবাদী পার্টির নেতা। পশ্চিম উত্তরপ্রদেশের এই দল থেকে তিনি রাজ্যের বিধান পরিষদের সদস্য।

২৪ বছর বয়সী মোহিতের ধারণা ছিল, শুধু এই পরিচয়ের জন্যই তাঁর আলাদা খাতির হবে থানায়! কিন্তু পুলিশের সাব-ইন্সপেক্টর জিতেন্দ্র কুমার তাঁকে প্রশ্ন করছেন দেখেই চট করে মাথাটা গরম হয়ে যায় মোহিতের! তখন পিছন থেকে এসে এক পুলিশকর্মী মোহিতকে থামাতে গেলে, মোহিত সেই পুলিশকর্মীর জামার কলার ধরে তাঁকে ধাক্কা দিয়ে দূরে সরিয়ে দেন। তাঁকেও দেখে নেওয়ার হুমকি দেন মোহিত!

সরকারি কর্মীদের কাজে বাধা, মারধরের অভিযোগে পরে অবশ্য গ্রেফতার করা হয় মোহিতকে।

পুলিশ জানাচ্ছে, মদ্যপ অবস্থায় থানায় এসেছিলেন মোহিত। আয় রোজগার কিছুই করেন না। বাবার বন্দুকের দোকান রয়েছে। আজ সকালে মোহিত একটি হাসপাতালে যান তাঁর আত্মীয়কে নিয়ে। তাঁর আত্মীয়ের এক্স-রে করানোর প্রয়োজন ছিল। হাসপাতালের কর্মীরা তাঁকে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করতে বলেন। কিন্তু মোহিত তাঁদের বলেন, তিনি ভিআইপি’র ভাইপো। তিনি অপেক্ষা করতে পারবেন না। শুধু তাই নয়, পরে তিনি এক ডাক্তার আর এক জন ল্যাব টেকনিশিয়ানকেও মারধর করেন।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষই ফোনটা করেন থানায়। পুলিশ গিয়ে মোহিতকে ধরে নিয়ে যায় থানায়।
গত মাসে প্রায় একই ধরনের ঘটনা ঘটিয়েছিলেন এক বিজেপি বিধায়ক মহেন্দ্র যাদব। তিনি পিটিয়েছিলেন টোল-বুথের এক কর্মীকে। এফআইআর করে সেই ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

Leave a Reply

Top