You are here
Home > সারা বাংলা > জেলার খবর > চাকরি দেয়ার নামে প্রতারণা, গ্রেফতার ৯ !!!!!

চাকরি দেয়ার নামে প্রতারণা, গ্রেফতার ৯ !!!!!

বিশেষ প্রতিনিধি :

গাজীপুরে চাকরি দেয়ার নামে বেকার যুবকদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে প্রতারণার অভিযোগে বুধবার রাতে একটি প্রাইভেটকার ও ১৯টি মোবাইল সেটসহ ৯ প্রতারককে গ্রেফতার করেছে র্যা ব -১ এর সদস্যরা।গ্রেফতাররা হলেন- গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের হায়দরাবাদ এলাকার হারুন অর রশীদের ছেলে মো. ফারুক হোসেন (৩৫), খুলনা দিঘুলিয়া থানার লাকোহাটি গ্রামের মৃত শরীফ সাত্তারের ছেলে মো. শরীফ সেলিম (৩২), গাইবান্ধ জেলার পলাশবাড়ি থানার বেলাকোপা থানার মো. জসুদুল হকের ছেলে মো. মেহেদী হাসান (২৭), গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ধীরাশ্রম এলাকার হারুন অর রশীদের ছেলে মো. এনামুল হক মামুন (২৮), খুলনা ডুমুরিয়া থানার মাগুরাঘোনা এলাকার মৃত দিলীপ ঘোষের ছেলে কার্তিক ঘোষ (২৬), চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাঙ্গা থানার পাচকমলাপুর গ্রামের মো. আমিনুলের ছেলে মো. বাপ্পি হোসেন (২৮), যশোর জেলার মনিরামপুর থানার বারপাড়া গ্রামের মো. মকবুল মোল্লারছেলেসাঈদ(২৫), যশোর জেলার কেশবপুর থানার মো. ইয়াকুব আলীর ছেলে মো. হাবিবুর রহমান (২৫) ও যশোর জেলার কেশবপুরের অপ্সাতের ছেলে মো. সুজন মিয়া (৩৫)।র্যা ব -১ জানায়, গোপন সূত্রের ভিত্তিতে র্যা ব -১ জানতে পারে একটি সক্রিয় প্রতারকচক্র বাংলাদেশ ধান গবেষণা ও কৃষি গবেষণা কেন্দ্রে বিভিন্ন পদে চাকরি দেয়ার নামে টাকার বিনিময়ে ভুয়া নিয়োগপত্র দিচ্ছে।পরবর্তীতে তাদের চাকরি হয়েছে মর্মে একটি হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর নিচ্ছে। এরা এভাবে এজেন্টের মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে চাকরি দেয়ার কথা বলে বেকার যুবকদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে প্রতারণা করে আসছিল।র্যা ব -১ জ্ঞিাসাবাদে প্রতারক ফারুক হোসেন জানান, তিনি বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কেন্দ্রে ফিল্ড অ্যাসিস্ট্যান্ট পদে চাকরি করে। চাকরির সুবাদে সে ধান গবেষণা কেন্দ্রের উচ্চ পদের অফিসার হিসেবে পরিচয় দেয়।তারা একে অপরের যোগসাজশে এই তিনজন বাংলাদেশ ধান ও কৃষি গবেষণায় চাকরির প্রলোভনে বিভিন্ন জেলার এজেন্ট নিয়োগ করে মোটা অংকের টাকা নিয়ে প্রার্থী সংগ্রহ করতেন বলেও জানায় র্যাব।

Leave a Reply

Top