You are here
Home > সারা বাংলা > জেলার খবর > গোপালগঞ্জে তুষার হত্যা মামলায় জেলা বিএনপির সভাপতিসহ ৪৮ জনের রিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল

গোপালগঞ্জে তুষার হত্যা মামলায় জেলা বিএনপির সভাপতিসহ ৪৮ জনের রিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি :

গোপালগঞ্জের চাঞ্চল্যকর ছাত্রলীগ নেতা রাকিব হোসেন খান তুষার হত্যা মামলায় সিআইডি জেলা বিএনপি সভাপতি, সদর থানার তৎকালীন ওসি, ইউপি চেয়ারম্যানসহ ৪৮ জনের রিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেছে।
রোববার গোপালগঞ্জ সিআইডির পরিদর্শক ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা শেখ মোঃ আকতার উজ্জামান গোপালগঞ্জের মুখ্য হাকিম দিলীপ কুমার ভৌমিকের আদালতে এ অভিযোগপত্র দাখিল করেন। শুনানি শেষে বিজ্ঞ বিচারক চার্জশিট গ্রহণ করে সকল আসামির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারি করেন।
চার্জশিট ভুক্ত আসামিরা হলেন, জেলা বিএনপির সভাপতি সিরাজুল ইসলাম, সাবেক সভাপতি এম এইচ খান মঞ্জু, গোপালগঞ্জ সদর থানার সাবেক ওসি মোঃ আইয়ুব, সাবেক লতিফপুর ইউপি চেয়ারম্যান জাফর হোসেন কালু, তার দু’ভাই সেলিম মোল্লা ও আলীমুজ্জামান আলীম, জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি মনিরুজ্জামান পিনু, জাহিদুর রহমান, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার শেখ আসাদুজ্জামান, বিএনপি নেতা মোঃ ছবেদ আলী ভুইয়া, পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি ঝন্টু খান, সাধারন সম্পাদক হামিদুর রহমান দুলাল, মোঃ নাদিম খান, জেলা বাস মালিক সমিতির সাবেক সভাপতি আকরামুজ্জামান সিকদার, তার ভাই ব্যবসায়ী মোঃ মাসুম সিকদার, জেলা বাস মালিক সমিতির সাবেক সভাপতি ইউনুছ মিয়া, ছেলে মোঃ কামিল, যুবদল নেতা সাইফুল ইসলাম, লেলিন সিকদার, জেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোঃ বিপ্লব, বাস ব্যবসায়ী হিংগুল মিয়া, তার দু’ ছেলে জিয়া ও মোস্তাক, বাস শ্রমিক আক্কেল আলী, সেকেন মোল্লা, এমদাদ হোসেন বাবুল, ইসমাইল হোসেন নুর, এনায়েত শেখ, নাজমুল শেখ, বাসু শেখ, অহিদ মোল্লা, চান্দু ফকির, রফিক সরদার, মোঃ ফয়সাল, মোঃ গোলাম রসুল, মোঃ ইব্রাহীম, মোঃ মিন্টু মিয়া, মোঃ রানা শেখ, মোঃ শহীদ, মোঃ নওশের শেখ নসু, রিয়াজ , নজরুল খান, মিন্টু খান, লেবু খান, হান্নান শেখ, আশ্রাফ মোল্লা, এয়াকুব শেখ ও কবির ফকির।
তবে চার্জশিটে মামলার এজাহার ভুক্ত আসামি জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এম মনসুর আলী, মিন্টু মোল্লা ও মোঃ রইজ ফকিরকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।
মামলার বিবরনে জানা গেছে, বিগত ২০০৪ সালের ৩১ জুলাই বাস ধর্মঘটকে কেন্দ্র করে আ’লীগ ও বিএনপি সমর্থিত দু’দল শ্রমিকের মধ্যে সংঘর্ষে গুলি বর্ষণে জেলা ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি রাকিব হোসেন খান তুষার গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। জেলা ছাত্রলীগের তৎকালীন সাধারণ সম্পাদক গাজী হাফিজুর রহমান লিকু গুলিবিদ্ধসহ আহত হন অন্তত ৫০ জন নেতাকর্মী । এ ঘটনায় গোপালগঞ্জ উত্তাল হয়ে ওঠে। পুলিশ বেপরোয়া হয়ে আন্দোলন ঠেকাতে গণ গ্রেপ্তার করে। ওই সময় তুষার হত্যাসহ ১৪ টি মামলা হয়।

Leave a Reply

Top