গাসিক মেয়রের নামে চাঁদাবাজির অভিযোগে দুইজনকে গ্রেফতার – Live News BD, The Most Read Bangla Newspaper, Brings You Latest Bangla News Online. Get Breaking News From The Most Reliable Bangladesh Newspaper; livenewsbd.co
You are here
Home > সারা বাংলা > জেলার খবর > গাসিক মেয়রের নামে চাঁদাবাজির অভিযোগে দুইজনকে গ্রেফতার

গাসিক মেয়রের নামে চাঁদাবাজির অভিযোগে দুইজনকে গ্রেফতার


ইমন খানঃ

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মানবিক মেয়র ও নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব এ্যাডঃ মোঃ জাহাঙ্গীর আলমের নামে চাঁদাবাজির অভিযোগে দুইজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
শনিবার তাদের গ্রেফতার করা হয় বলে নিশ্চিত করেছেন গাছা মেট্রো থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. ইসমাইল হোসেন।


ওসি জানান, আটকরা হলেন গাজীপুরের গাছা থানার সাইনবোর্ড এলাকার বাদল খন্দকারের বাড়ির ভাড়াটিয়া মো. সাইফুল আলম (২৬) ও একই এলাকার বুলবুলের বাড়ির ভাড়াটিয়া জহিরুল ইসলাম বাবু (৪০)।


এ বিষয়ে শনিবার দুপুরে মহানগরীর নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের গাজীপুর মেয়র অ্যাডভোকেট মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, দেশব্যাপী করোনা ভাইরাস তাণ্ডবের সুযোগ নিয়ে কিছু সুবিধাবাদী লোক, চাঁদাবাজ ও ধান্দাবাজ বিভিন্ন ফ্যাক্টরির মালিকদের ফোন দিয়ে আমার নামে বা সিটি করপোরেশনের নামে চাঁদা দাবি করে। এই ধারাবাহিকতায় একটি ফ্যাক্টরির মালিক তাদের এসে টাকা নিতে বলেন। সে হিসেবে মালিকপক্ষ স্থানিয় পুলিশ প্রশাসনের সঙ্গে যোগাযোগ করে তাদের দুই জনকে ধরেছে এবং অন্যদেরও ধরার জন্য চেষ্টা করছে। বর্তমানে তাদের নামে মামলা চলছে। 


সিটি মেয়র আরো বলেন, দেশের এমন এক দুর্যোগ মুহূর্তে মানবিকভাবে সহযোগিতার মনোভাব নিয়ে সবার অসহায়দের পাশে দাঁড়ানো উচিত। কেউ যাতে সুযোগ নিয়ে কোন প্রকার ধন্দাবাজি বা মিথ্যা তথ্য দিয়ে সত্যকে আড়াল করতে না পারে সেজন্য তিনি বিশেষ করে মিডিয়াকর্মী ও সকলের কাছে সহযোগিতা কামনা করেন।


গাজীপুর মেয়র বলেন, গাজীপুরের লাখ লাখ মানুষের স্বাস্থ্য সুরক্ষার কথা চিন্তা করে প্রশাসনের আরো কঠোর হতে হবে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কেউ যাতে ঘরের বাইরে না যেতে পারে সেই বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে।


এখনো সিটি এলাকায় নানা প্রয়োজনে বহু মানুষ বাইরে চলে আসছে এমন প্রসঙ্গে মেয়র জাহাঙ্গীর আলম বলেন, গাজীপুরে ২০-২২ লাখ শ্রমিক কাজ করেন কিন্তু এদের মালিকরাই বেতন ভাতা না দিয়েই কারখানা ছুটি দিয়েদিয়েছে। এ অবস্থায় সরকার বা সিটি করপোরেশনের পক্ষে কোনোভাবেই সম্ভব নয় একসঙ্গে ২০-২২ লাখ মানুষের খাদ্য যোগান দেয়া। তাই মালিকদের বলবো যে কোনোভাবেই হউক যোগাযোগ করে তাদের যেন বেতন ভাতা পরিশোধ করা হয়। তা না হলে খাদ্য সংকটে পরে দুর্ভোগ আরো ব্যাপক আকার ধারণ করতে পারে।

Leave a Reply

Top