You are here
Home > সারা বাংলা > জেলার খবর > গাজীপুর মহানগরের থানা ও ওয়ার্ড আওয়ামী সেচ্ছাসেবকলীগের কমিটিতে ছাএদল জামাত শিবির প্রবেশ করতে পারে।

গাজীপুর মহানগরের থানা ও ওয়ার্ড আওয়ামী সেচ্ছাসেবকলীগের কমিটিতে ছাএদল জামাত শিবির প্রবেশ করতে পারে।

পগর মাহমুদ সাগর ঃ

গাজীপুর মহানগর আওয়ামী সেচ্ছাসেবকলীগের অন্তর্গত সকল থানা ও ওয়ার্ড কমিটি গঠনের লক্ষ্যে থানা ও ওয়ার্ড কমিটির সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক প্রার্থীদের থেকে জীবনবৃওান্ত সংগ্রহ করছেন গাজীপুর মহানগর আওয়ামী সেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক।মহানগরের অন্তর্গত প্রত্যেক থানা ও ওয়ার্ডে সভাপতি সাধারন সম্পাদক দুটি পদের বিপরীতে প্রার্থী রয়েছেন একাধিক।কোন কোন থানা ও ওয়ার্ডে দুইটি পদের বিপরীতে তিন চার জন করে সভাপতি সাধারন সম্পাদক প্রার্থী হিসেবে জীবনবৃওান্ত জমা দিয়েছেন।মহানগর আওয়ামী সেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি সনজিৎ মল্লিক বাবু ও নবনিবার্চিত কাউন্সিলর সাধারন   সম্পাদক হাজী মনির প্রত্যােক ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে থানায় থানায় গিয়ে নতুন একটি ইউনিট হিসেবে গাজীপুর মহানগর আওয়ামী সেচ্ছাসেবকলীগকে অনেক শক্তিশালী ও সুসংগঠিত করেছেন।কিছু জামাত শিবির বিএনপির নেতারা থানা ও ওয়ার্ড কমিটিতে অনুপ্রবেশ করার আপ্রান চেষ্টা করে যাচ্ছে।এ ব্যাপারে কথা বলি মহানগরের সবচেয়ে গুরত্বপূর্ণ থানা জয়দেবপুর থানা সেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি প্রার্থী বীরমুক্তিযোদ্ধার সন্তান সেচ্ছাসেবকলীগের দীর্ঘদিনের রাজপথের কর্মী সাইফুল্লাহ শাওনের সাথে।শাওন বলেন , প্রার্থী সবার হওয়ার অধিকার আছে। কে নেতৃত্বে আসবে আর কে আসবে না তা নির্ধারন করবে আমাদের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ।সেচ্ছাসেবকলীগ আমাদের প্রানের সংগঠন।মহানগর সেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক এর সুযোগ্য নেতৃত্বে মহানগর সেচ্ছাসেবকলীগ একটি শক্তিশালী ইউনিটে পরিনত হয়েছে।আমরা দীর্ঘদিন ধরে সেচ্ছাসেবকলীগ করে আসছি আমরা চাই পরগাছা মুক্ত সুন্দর সুশৃঙ্খল হোক সেচ্ছাসেবকলীগের থানা ও ওয়ার্ড এর প্রত্যেকটা ইউনিট।যারা দীর্ঘদিন ধরে সংগঠনের পিছনে শ্রম দিচ্ছে তাদের প্রত্যেকের শ্রমের মর্জাদা দেওয়া হোক।মহানগর সেচ্ছাসেবকলীগের সভাপত ও সাধারন সম্পাদকের কাছে আশা করি প্রত্যেকের পারিবারিক ঐতিহ্য জেনে বুঝে পরে কমিটি দিবে এ আশা করি যেন জামাত শিবির বিএনপি কেউ যেন সেচ্ছাসেবকলীগের গুরত্বপূর্ণ জায়গায় স্থান না পায়।

Leave a Reply

Top