You are here
Home > দূরনীতি ও অপরাধ > কুষ্টিয়ায় আটক তিন নারীর পরিচয় জানা গেছে

কুষ্টিয়ায় আটক তিন নারীর পরিচয় জানা গেছে

স্টাফ রিপোর্টারঃ জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলায় বামনপাড়া তালতলা এলাকায় টিনশেড বাড়িটি এখনো ঘিরে রেখেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। আজ শনিবার বিকেলে এই অভিযান সম্পর্কে আনুষ্ঠানিক বিফ্রিং করবেন কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এস এম মেহেদী হাসান। এই ঘটনায় এ পর্যন্ত তিন নারীকে আটক করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। তাঁদের পরিচয় জানা গেছে।

ভেড়ামারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নূর হোসেন খন্দকার বলেন, বিকেল চারটায় বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল ঘটনাস্থলে পৌঁছাবে। এরপর ব্রিফিং হবে।

এর আগে নাম প্রকাশ না করে পুলিশের এক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জানান, আটক হওয়া তিন নারী হলেন টলি আরা, নব্য জেএমবির আমির আইয়ুব বাচ্চুর স্ত্রী তিথি ও জঙ্গি তালহার স্ত্রী সুমাইয়া। বাড়িটির দুটি কক্ষ ভাড়া নিয়েছিলেন টলি আরা। তিথি ও সুমাইয়াকে ননদ পরিচয়ে ভাড়া বাসায় নিয়ে আসেন তিনি। তিথির সঙ্গে চার মাসের এক শিশু ছিল। টলি আরার সঙ্গে ছিল ছয় বছরের শিশু।

আজ দুপুর ১২টার দিকে ভেড়ামারা থানায় গিয়ে হাজতখানায় এই পাঁচ নারী ও শিশুকে দেখা যায়। কথা বলতে গেলে পুলিশ বাধা দেয়। তাঁদের হাজতের ভেতর বসে থাকতে দেখা যায়।

অভিযান চালানো বাড়িটির ভেতরে আর কোনো জঙ্গি আছে কি না, তা জানতে চাইলে ওই অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বলেন, ধারণা করা হচ্ছে নেই। বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল ঘটনাস্থলে পৌঁছালে ভেতরে ঢোকা হবে।

এর আগে আটক করা তিন নারীর মধ্যে দুজনের পরিচয় জানায় ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কাউন্টার টেররিজম ইউনিট। এই তিন নারী নব্য জেএমবির সদস্য বলে জানিয়েছে কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের উপকমিশনার (ডিসি) মহিবুল ইসলাম খান। তাঁর পক্ষ থেকে এক খুদে বার্তায় জানানো হয়, এই তিন নারী নব্য জেএমবির নারী সদস্য। তাঁদের একজন নব্য জেএমবির আমির আইয়ুব বাচ্চুর স্ত্রী ও আরেকজন জঙ্গি তালহার স্ত্রী।

এ পর্যন্ত একটি পিস্তল, তিনটি ম্যাগাজিন, দুটি সুইসাইড ভেস্টসহ বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরক দ্রব্য উদ্ধার করা হয়েছে বলে খুদে বার্তায় জানায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

বামনপাড়া তালতলা এলাকায় এই বাড়ির মালিক নাসিমা খাতুন। তিনি ভেড়ামারা উপজেলার স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের অফিস সহকারী। ঘিরে রাখা টিনশেডের এই বাড়ির পুরোটা ভাড়া দেওয়া। বাড়ি থেকে ২০০ গজ দূরে নিজের আরেকটি তিনতলা বাড়িতে থাকেন নাসিমা খাতুন।

জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলার বামনপাড়া তালতলা এলাকায় একটি টিনশেড বাড়ি শুক্রবার রাত থেকে ঘিরে রেখেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

মোবাইল ফোনে দেয়া নাসিমা খাতুনের ভাষ্য, চার-পাঁচ মাস আগে টলি আরা নামের এক নারী বাড়িটির একটি অংশ ভাড়া নেন। এখানে দুটি কক্ষ রয়েছে। ভাড়া নেয়ার সময় টলি আরা জানান, তাঁর স্বামীর নাম আরমান আলী। তিনি সপ্তাহে দুই-তিন দিন এসে বাড়িতে থাকতেন। ভাড়া দেয়ার পরপরই ভাড়াটের তথ্য নিয়ে থানায় কাগজপত্র জমা দিয়েছিলেন বলে জানান নাসিমা খাতুন। পাঁচ মাস আগে একই এলাকার অন্য বাড়িতে ভাড়া ছিলেন টলি আরা। সেখানে দুই-তিন বছর ছিলেন। টলি আরা এলাকায় পরিচিত হয়ায় নিজের বাসা ভাড়া দেন নাসিমা।

নাসিমা খাতুনের তথ্যমতে, দুই-তিন দিন আগে ওই বাসায় আরও দুজন নারী আসেন। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে তাঁদের ননদ বলে পরিচয় দেন টলি আরা। তিনি বাড়িতে সেলাইয়ের কাজ করেন। আজ সকালে নাসিমা জানতে পারেন, টলি আরাসহ ওই দুই নারীকে পুলিশ থানায় নিয়ে গেছে।

সকালে যোগাযোগ করা হলে এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেন কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এস এম মেহেদী হাসান। তিনি বলেন, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে ঢাকার কাউন্টার টেররিজম ইউনিট ও জেলা পুলিশ যৌথভাবে গতকাল শুক্রবার রাত ১২টা থেকে এ অভিযান শুরু করে, যা এখনো চলছে।

এস এম মেহেদি হাসান বলেন, ধারণা করা হচ্ছে, ওই টিনশেড বাড়ির ভেতর বড় ধরনের বিস্ফোরক দ্রব্য রয়েছে। বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দলকে খবর দেওয়া হয়েছে। তারা এলে ঘরের ভেতর অভিযান চালানো হবে।

Leave a Reply

Top