You are here
Home > সারা বাংলা > প্রাকৃতিক দূর্যোগ > কাশিমপুরে নারীর দাফনে এগিয়ে এলেন মেয়র জাহাঙ্গীর আলম

কাশিমপুরে নারীর দাফনে এগিয়ে এলেন মেয়র জাহাঙ্গীর আলম

গাজীপুর প্রতিনিধিঃ

নগরের কাশিমপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কুতুবউদ্দিনের স্ত্রী গার্মেন্টসকর্মী ফারজানা জান্নাত ছবি (৩২) থাকতেন গাজীপুরের ৫ নম্বর ওয়ার্ডে। করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা গেলে দূরে সরে যান পাড়া-প্রতিবেশীরা। মরদেহ দাফন করার জন্য কেউই এগিয়ে আসে না। এ খবর যায় গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব এ্যাডঃ মোঃ জাহাঙ্গীর আলমের কানে। তৎক্ষণাত তিনি নির্দেশ দেন স্থানীয় কাউন্সিলর মোঃ দবির উদ্দিন সরকারকে।

এরপর প্রয়োজনীয় সুরক্ষা সামগ্রী নিশ্চিত করে মেয়রের নেতৃত্বে কাউন্সিলর এবং স্থানীয় নেতাকর্মীরা ফারজানার মরদেহ দাফনের ব্যবস্থা করেন ভোরে । এ ঘটনায় গাজীপুরের ৫ নম্বর ওয়ার্ডে মেয়রের প্রশংসা ছড়িয়ে পড়ে। রোববার ভোরে এ মরদেহ দাফন করা হয় বলে জানা গেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ফারজানা জান্নাত ছবির তিন বছর বয়সী একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। স্বামী এবং কন্যাসহ ৫ নম্বর ওয়ার্ডে বসবাস করতেন। শনিবার দিনগত রাতে তিনি মারা যান। মৃত্যুর আগে তার জ্বর, শ্বাসকষ্টসহ করোনাভাইরাসের বিভিন্ন উপসর্গ ছিল। তার মরদেহ কাশিমপুর ভুইয়া কবরস্থানে দাফন করা হয়।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, ফারজানা জান্নাত গাজীপুরের ভোটার নন। তাকে নিয়ে মেয়রের কোনো বাড়তি উদারতা না দেখালেও চলে। কিন্তু সবকিছু ভুলে মেয়র জাহাঙ্গীর আলম মানবতার আরেক দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। কেউ যখন এগিয়ে আসলো না, মেয়র নিজেই এগিয়ে এসে এই নারীর মরদেহ দাফনের বন্দোবস্ত করলেন। এ ঘটনায় এলাকাবাসী বিস্ময় প্রকাশ করেন।

এর কয়েক ঘণ্টা আগেই মেয়র জাহাঙ্গীর আলম গাজীপুরে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া এক শিক্ষকের মরদেহ দাফন করেন। গভীর রাতে ওই শিক্ষকের মরদেহ দাফনের শুরু থেকে শেষপর্যন্ত তদারকি করেন গাজীপুর মেয়র

Leave a Reply

Top