You are here
Home > আন্তর্জাতিক > ইতালিতে গণধর্ষণের শিকার হতে যাওয়া তরুণীকে বাঁচালেন বাংলাদেশি অভিবাসী

ইতালিতে গণধর্ষণের শিকার হতে যাওয়া তরুণীকে বাঁচালেন বাংলাদেশি অভিবাসী

ইতালিতে গণধর্ষণের হাত থেকে এক তরুণীকে রক্ষা করেছেন প্রবাসী বাংলাদেশি আলমগীর হুসেইন। ইতালির ফ্লোরেন্স শহরে ২৫ জন মাতালের হাত থেকে একা তরুণীকে বাঁচান আলমগীর। ২৫ বছর বয়সী ছাত্রী গায়া গুরনোত্তা জানিয়েছেন, ফুল বিক্রেতা আলমগীরের সহায়তা না পেলে মাতালরা মেয়েটিকে ধর্ষণ করত।

গায়া গুরনোত্তা জানান, মাতালরা একজোট হয়ে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। ভুল করে যৌনকর্মী ভেবে তারা গায়ার পিছু নিয়েছিল বলেও জানান তিনি। তাকে পালাতে দেখে অশ্লীল ভাষায় গালিও দেন ওই যুবকরা।

ইতালির লিবোরনোতে জন্ম নেয়া গায়া গুরনোত্তা তার ফেসবুক পেজে একটি স্ট্যাটাসে লেখেন, ‘রাত ১১টা ৩০ মিনিট নাগাদ একা বের হয়েছিলাম রাস্তায় হাঁটতে। আমি আসলে হাঁটতে ভালোবাসি। আমি ফ্লোরেন্স শহরকে খুব ভালোবাসি; সেই সঙ্গে রাত আমার খুব পছন্দের সময়।

তিনি আরও লেখেন ‘ওই রাতে হাঁটতে হাঁটতে রিপাবলিকা চত্ত্বরে আসলে একদল মাতাল আমার পিছু নিয়ে বলতে থাকে, আমাদের সঙ্গে চলো, মজা করি। ২৫ জন একসঙ্গে, তোমার রাত খুব ভালো কাটবে।’ গায়াকে দেয়া প্রস্তাবকে দয়া এবং অনুগ্রহ হিসেবেও বর্ণনা করেন তারা।

গায়া জানান, ওই যুবকরা তাদের দেয়া প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করাটাকে কোনো নারীর জন্য বোকামি হবে বলে গায়াকে বলতে থাকেন। ঠিক সেই মুহূর্তে ফুল বিক্রেতা আলমগীর সেখানে এসে গায়াকে রক্ষা করেন এবং গায়ার বন্ধুদের ফোন করে এনে তাকে বন্ধুদের হাতে তুলে দেন।

আলমগীরের ব্যাপারে গায়া লেখেন, হুসেইনের মতো মানুষের জন্য পৃথিবীকে অসংখ্য ধন্যবাদ; যে ব্যক্তি কোনো বিনিময় ছাড়াই অন্যকে সহযোগিতা করতে পারে। তাকে আমি কোনোদিনই ভুলব না।

তিনি আরও লেখেন, এই গল্প তিনি এ কারণে শেয়ার করতে চান, যাতে করে সারাবিশ্বে নারীদের পক্ষে জনমত তৈরি করা সম্ভব হয়।

স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমেও বাংলাদেশি আলমগীরের এই বীরত্বের কথা ফলাও করে ছাপা হয়েছে। উল্লেখ্য ২০০৫ সাল থেকে ইতালিতে বসবাস করছেন আলমগীর হোসেন।

Leave a Reply

Top