আবারও চমকের নাম জাহাঙ্গীর আলম – Live News BD, The Most Read Bangla Newspaper, Brings You Latest Bangla News Online. Get Breaking News From The Most Reliable Bangladesh Newspaper; livenewsbd.co
You are here
Home > সারা বাংলা > জেলার খবর > আবারও চমকের নাম জাহাঙ্গীর আলম

আবারও চমকের নাম জাহাঙ্গীর আলম

ইমন খান,গাজীপুর :

প্রতি বছরের মত এ বছরও শোক দিবসে চাঁদাবাজি ঠেকাতে নিজ অর্থায়নে তবারক বাবদ গরু বিতরণ করবেন গাজীপুর মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আলহাজ¦ এ্যাড.মোঃ জাহাঙ্গীর আলম। গত ৩রা আগস্ট টংগী থানা আওয়ামীলীগ অফিসে শোক দিবস নিয়ে আলোচনা সভায় এ কথা বলেন। তিনি আরও বলেন- নগরের ৫৭টি ওয়ার্ডে,সাবেক ইউনিয়নে,সাবেক পৌরসভায়,আ’লীগের অঙ্গ সংগঠনে,মসজিদ,মাদ্রাসায়,এতিমখানায়-জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪২ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে গাজীপুর মহানগর আওয়ামীলীগের উদ্যেগে ১৪ ই আগস্ট তার বাসভবনে গরু বিতরনের আয়োজন করা হবে। এতে গাজীপুরের সকল এমপি,নগর ও জেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ থাকবেন। খোজ নিয়ে জানা গেছে, আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় থাকায় শোক দিবসের আলোচনা সভা ও তবারক বিতরণ নিয়ে মাসব্যপী প্রোগ্রাম হয়ে থাকে সারাদেশের মত গাজীপুরেও । কিন্তু এতে বিভিন্ন বিভান্তিতে পড়তে হয় স্থানীয় এমপি সহ আ’লীগের নেতৃবৃন্দদের। দেখা গেছে অনেক জায়গায় শোক দিবসের কার্ড নিয়ে বিভিন্ন মিল ফ্যাক্টরীতে,ব্যবসায়ীদের কাছে,সমাজের বিত্তবানদের কাছে শোক দিবসের কার্ডে অনেক সময় এমপি.মন্ত্রীদের বা আ’লীগের বড় নেতাদের নাম ব্যবহার করা থাকে। ভয়ভীতি ও হুমুকি ধুমকির ভিতরে পড়ে বা চক্ষু লজ্জার কারনে অনেকে বাধ্য হয় চাঁদা দিতে । এতে দল ও দলের প্রধানদের ঘৃণার চোখে দেখে বলেও অনেকে মনে করছেন। তাই গাজীপুর মহানগরে আওয়ামীলীগ সহ অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দের সার্বিক সহয়োগিতা চেয়েছেন মোঃ জাহাঙ্গীর আলম। তিনি হুশিয়ার বার্তা দিয়ে নেতাকর্মীদের বলেনÑশোক দিবস নিয়ে চাঁদাবাজি হলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবেনা। কোন প্রমাণ তথ্য পেলে সাথে সাথে এ্যাকশনে যাবেন বলেও নেতাকর্মীদের জানিয়েছেন।

গাজীপুরে সফিপুর আনসার একাডেমির মাঠে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে মোঃ জাহাঙ্গীর আলম

২০১৫ সালে ১৪ ই আগস্ট জাতির জনকের ৪০ তম শাহাদাৎ বার্ষিকীতে শতাধিক গরু বিতরণ করে আলোচনায় এসেছেন মোঃ জাহাঙ্গীর আলম। কেন্দ্রীয় নেতা সহ দলীয় প্রধানের দপ্তরে এ নিয়ে ব্যাপক আলোচনা হয়েছে। কেন্দ্রীয় এক নেতার অনুভুতি ছিল এ রকম যে,গাজীপুরে আ’লীগ করে বহু অর্থবিত্ত নেতা আছেন কিন্তু শোক দিবসে বঙ্গবন্ধুর নামে তবারক বিতরণ করেন এ রকম ক’জন আছেন। তবে সে নেতা আরও বলেন-টাকা পয়সা সবার আছে দলের জন্য মন ক’জনের আছে সেটাই দেখার বিষয়। সেদিন সেই গরু বিতরণ করা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন-গাজীপুর জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আলহাজ¦ এ্যাড. আ ক মমোজাম্মেল হক এমপি,সভাপতিত্ব করেন নগর আ’লীগের সভাপতি এ্যাড.আজমত উল্লাহ খান। তখনকার জাতীয় পত্রিকায় শিরোনাম আসলো শোকদিবসে চাঁদাবাজি ঠেকাতে মোঃ জাহাঙ্গীর আলমের উদ্যেগে গরু বিতরণ। এটা দেশের আনাচে গানাচে সর্বত্রে ছড়িয়ে পড়লে মোঃ জাহাঙ্গীর আলমকে নতুন করে চিনে নিল দেশের প্রধান রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ।

২০১৬ সালে ১৪ আগস্ট শোক দিবসের গরু বিতরণ কালে
২০১৬ সালের ১৪ই আগস্ট জাতির জনকের ৪১ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে ১২০ টি গরু বিতরণ করা হয়। আর সে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ছিলেন-শ্রমিক নেতা ভাওয়ালবীর শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার এমপির সু যোগ্য সন্তান যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সভাপতি আলহাজ¦ মোঃ জাহিদ আহ্সান রাসেল এমপি,সভাপতিত্ব করেন নগর আ’লীগের সভাপতি। সে সময় নগরের হাজার হাজার নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন তারা সবাই বুজতে পেড়েছিল যদিও নগর আওয়ামীলীগের নেতৃত্বে গরু বিতরণ,কিন্তু পক্ষান্তরে মোঃ জাহাঙ্গীর আলমের অর্থায়নেই তা হয়েছে-কথাগুলো বললেন নগর আওয়ামীলীগের সহ দপ্তর সম্পাদক মোঃ মাজহারুল ইসলাম। তিনি আরও বলেন নগর আ’লীগের কোন নেতা একটি পয়সাও এই গরু বিতরণে দেন নি।
আওয়ামীলীগের অনেক নেতাই মনে করছেন আগামী সিটি নির্বাচনে মোঃ জাহাঙ্গীর আলম দলীয় প্রতীকে নির্বাচন করার জন্য ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করছেন,এবং দলীয় প্রতীক পেতে শোক দিবসে গরু বিতরণ করে দলীয় প্রধানের মন আকৃষ্ট করছেন। সাবইকে চমকে দিয়ে তিনি বললেন-আমি নগরের দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত বলিনি যে সিটি নির্বাচনে আমি মেয়র প্রার্থী,আগামীতে নির্বাচন করব। তবে দলীয় পদে যেহুতে আছি দলের লোকের জন্য,দলের জন্য কাজ করতে হবে এতে জনপ্রতিনিধি না হয়ে কাজ করা যায়। তিনি আরও বলেন গাজীপুর আওয়ামী রাজনিতি ছিল ঘুমন্ত রাজনিতি নগরের দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকে সকল তৃণমুল নেতাদের উজ্জীবিত করে সরকারের উন্নয়ন মুলক কাজ জনগনের কাছে পৌছে দেওয়ার জন্য তাদেরকে ঐক্যবদ্ধ করেছি। প্রতিনিধি সভা করে তৃণমূলের জবাবদিহিতা চালু করেছি। সাংগঠনিক থানায় প্রতিনিধি সভা করে সবার মতামত নিয়েছি,কিভাবে সরকার গঠন আওয়ামীলীগের মাধ্যমে হয়। সরকার বড় নয় একটি দল বড় আর দল থেকেই সরকার গঠন করা হয়। আমরা নেতাকর্মীদের শিখিয়েছি পার্টির প্রধান,আপনার ও আপনার পরিবারের খোজখবর রাখবেন। একটি পাড়া কমিটির সদস্য কেই মূল্যায়ন করা হবে দেশ রতœ শেখ হাসিনার মাধ্যমে। সে হিসেবে দলের জন্য দিন রাত শ্রম দিয়ে আসছি। আগামীতে সিটি নির্বাচন ও জাতীয় নির্বাচন আমি কোন নির্বাচনে প্রার্থী নই। দেশ রতœ শেখ হাসিনা নগরের বড় দায়িত্ব আমাকে দিয়েছেন তা আমি পালন করার চেষ্টা করছি,পরবর্তী সময়ে আমাকে কোন দায়িত্ব দিলে তা আমি পালন করব। দলের স্বার্থে সব রকমের কাজ করার জন্য প্রস্তুত আছি। তিনি আরও বলেন আমার বাসভবনের সামনে শোক দিবসে গরু বিতরণ করা হবে,সেখানে আপনারা সকলে আমন্ত্রিত।

One thought on “আবারও চমকের নাম জাহাঙ্গীর আলম

  1. জননেতা জাহাংগীর আলম,যিনি গাজীপুর মহানগর আওয়ামিলীগের 57 ওয়ার্ডের সকল কমীর্দের নিরভর যোগ্গ ঠিকানা.

Leave a Reply

Top