You are here
Home > Uncategorized > আগষ্ট মাস এলেই প্রশাসনের ভুমিকা নিরব– মেয়র জাহাঙ্গীর আলম

আগষ্ট মাস এলেই প্রশাসনের ভুমিকা নিরব– মেয়র জাহাঙ্গীর আলম


ইমন খানঃ

১৯৭৫ সালে ১৫ই আগষ্টের পর প্রশাসন নিরব ছিল, তারই ধারাবাহিকতায় ২০০৪ সালের ২১শে আগষ্টের পর প্রশাসন নিরব ভূমিকা পালন করেছে। ৭৫ দেখিনি কিন্তু ২০০৪ সালের ২১ শে আগষ্ট দেখেছি। গাজীপুর মহানগর জাতীয় শ্রমিক লীগের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এসব কথা বলেন গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও মানবিক মেয়র আলহাজ্ব এ্যাডঃ মোঃ জাহাঙ্গীর আলম। গাজীপুর মহানগর জাতীয় শ্রমিক লীগের আহবায়ক আব্দুল মজিদ বিএসসির সভাপতিত্বে ও গাজীপুর মহানগর জাতীয় শ্রমিক লীগের যুগ্ন আহবায়ক কবির আহমেদ মন্ডল, মাহফুজুর রহমান মাহফুজের সঞ্চালনায়। মেয়র আরও বলেন,তৎকালীন বিরোদী দলীয় নেত্রী আজকের সফল রাষ্ট্র নায়ক দেশরত্ম শেখ হাসিনা সহ আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী কর্মীদের উপর যে বর্বরোচিত গ্রেনেড হামলা হয়েছিল। বিএনপি জামাতের পৃষ্টপোশকতায় তখন প্রশাসন নিরব ভুমিকা পালন করেছে। তখনকার বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল জলিল সহ আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারা এই প্রশাসনের দ্বারে দ্বারে ঘুরেও বিচার পায় নি।
মেয়র জাহাঙ্গীর আলম বলেন,আমাদের সর্তক থাকতে হবে,তাদের বিরুদ্ধে রুখে দাড়াতে হবে। যারা ৭৫ ঘটিয়েছিল তারা আমাদের আশে পাশেই ঘুরছে।
২৩ শে আগষ্ট নগরের জয়দেবপুর দলীয় কার্যালয়ে বেলা ১১ টায় শোক সভার অনুষ্ঠান শুরু হয়ে দুপুর ২ টায় শেষ হয়। জাতির জনকের পরিবারের জন্য দোয়া ও মোনাজাত করে তবারক বিতরণের মাধ্যমে শেষ হয়।
এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন গাজীপুর সংরক্ষিত আসনের এমপি জনাবা শামসুন্নাহার ভুঁইয়া, মহানগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি এ্যাডঃ ওয়াজ উদ্দিন মিয়া, আব্দুর রউফ নয়ন,যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান এস এম মোকছেদ আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ মজিবুর রহমান, সদস্য আব্দুল হাদি শামিম, উপদেষ্টা রিয়াজ মাহমুদ আয়নাল, গাজীপুর মহানগর জাতীয় শ্রমিক লীগের যুগ্ন আহবায়ক ইব্রাহিম খলিল, মেহেদী হাসান সুমন, মজিবুর রহমান, আব্দুল জলিল,গাজীপুর মহানগর যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক সুমন আহমেদ শান্ত বাবু গাজীপুর মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মাসুদ রানা এরশাদ। দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা আক্তার হোসেন গাজীপুরী।

Top