You are here
Home > আন্তর্জাতিক > আইএস নিয়ন্ত্রিত তাল-আফারের অধিকাংশ এলাকা পুনর্দখলের দাবি করেছে ইরাকি বাহিনী

আইএস নিয়ন্ত্রিত তাল-আফারের অধিকাংশ এলাকা পুনর্দখলের দাবি করেছে ইরাকি বাহিনী

আইএস নিয়ন্ত্রিত তাল-আফারের অধিকাংশ এলাকা পুনর্দখলের দাবি করেছে ইরাকি বাহিনী। এরইমধ্যে এলাকাটির ৯০ শতাংশ আইএসমুক্ত করা হয়েছে বলে জানান তারা। ইরাকি প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেছেন, খুব শিগগিরই তাল আফারকে শত্রুমুক্ত ঘোষণা করা হবে। এদিকে ইরাকের সন্ত্রাসবিরোধী অভিযানে সমর্থন অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়েছে ফ্রান্স।

শনিবার তাল আফারে আইএস জঙ্গিদের লক্ষ্য করে ব্যাপক হামলা চালায় ইরাকি বাহিনী।হামলায় একদিনেই ৭০ শতাংশ এলাকা পুনর্দখলে নেয়ার দাবি করেছে ইরাকি সেনারা। ট্যাংক হামলার পাশাপাশি দখলকৃত এলাকায় চালানো হয় চিরুনি অভিযান।

মার্কিন সামরিক বাহিনীর ধারণা, এলাকাটিতে এখনো প্রায় ২ হাজার আইএস সদস্য লুকিয়ে আছে। আর জাতিসংঘ বলছে, আইএসের বিরুদ্ধে তীব্র লড়াইয়ের কারণে ঘরবাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গেছে সেখানকার ৩০ হাজারেরও বেশি সাধারণ মানুষ। পালিয়ে আসা এসব বেসামরিক নাগরিক খাবার ও বাসস্থান সঙ্কটে চরম মানবেতর জীবন-যাপন করছে।

একইদিন আইএসবিরোধী অভিযানের অগ্রগতি সম্পর্কে জানতে তাল আফার পরিদর্শনে আসেন ইরাকি প্রতিরক্ষামন্ত্রী আরফান আল হায়ালি। এসময় সাংবাদিকদের তিনি বলেন, শিগিগরিই তাল-আফারকে আইএসমুক্ত ঘোষণা করা হবে।

আল হায়ালি বলেন, ‘শত্রুরা আর বেশি দিন অবস্থান করতে পারবে না। তাদের দিন শেষ।শিগগিরই আমাদের সেনাবাহিনী এখান থেকে তাদের পুরোপুরি বিতাড়িত করতে সক্ষম হবে। সেনা সদস্যরা তাদের চারদিক থেকে ঘিরে ফেলেছে।’

তাল-আফারে আইএসবিরোধী অভিযানের মধ্যেই শনিবার ইরাক সফরে আসেন ফ্রান্সের উচ্চ পর্যায়ের একটি প্রতিনিধি দল। এসময় তাদের স্বাগত জানান ইরাকের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইবরাহিম আর জাফারি। পরে বাগদাদে দীর্ঘ সময় বৈঠক করেন তারা। বৈঠক শেষে যৌথ সংবাদ সম্মেলনে ইরাকের আইএসবিরোধী অভিযানে সমর্থন অব্যাহত রাখার ঘোষণা দেন ফরাসি প্রতিরক্ষামন্ত্রী ফ্লোরেন্স পারলি।

তিনি বলেন, ‘ফ্রান্স সব সময় সন্ত্রাসবিরোধী লড়াইয়ে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। মসুল লড়াইয়ে ফ্রান্স যেমন সমর্থন দিয়েছে। ভবিষ্যতেও ইরাকে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে চালিয়ে যাবে ফ্রান্স। পাশাপাশি দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কও জোরদার করতে চাই আমরা।’

এসময় সন্ত্রাস বিরোধী অভিযানের পাশাপাশি ইরাক পুনর্গঠনে ফ্রান্সকে সহায়তার আহ্বান জানান দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইবরাহিম আর জাফারি।

তিনি বলেন, ‘জঙ্গিগোষ্ঠী আইএস আমাদের অবকাঠামোসহ সবকিছু ধ্বংস করে দিয়েছে। আশা করি, ফ্রান্স শত্রুমুক্ত করতে যেমন সহায়তা করেছে, তেমনি আমাদের অবকাঠামো উন্নয়নেও সহযোগিতা করবে।’

একইদিন ইরাকের স্বায়ত্তশাসিত কুর্দিস্তান সফরে যান ফ্রান্সের ওই প্রতিনিধি দল। সেখানে তাদের স্বাগত জানান কুর্দি প্রেসিডেন্ট মাসুদ বারজানি।

Leave a Reply

Top