You are here
Home > আন্তর্জাতিক > অবৈধভাবে বসবাসের অভিযোগে ভারতে এক বাংলাদেশীকে আটক

অবৈধভাবে বসবাসের অভিযোগে ভারতে এক বাংলাদেশীকে আটক

স্টাফ রিপোর্টারঃ অবৈধভাবে বসবাসের অভিযোগে ভারতের উত্তরপ্রদেশের মিরাটে এক বাংলাদেশী নাগরিককে আটক করেছে উত্তরপ্রদেশ পুলিশের বিশেষ টাস্ক ফোর্স (এসটিএফ)। বাংলাদেশী  ওই নাগরিকের নাম আবু হান্নান, বাবা আবদুল হান্নান। বাড়ি বাংলাদেশের রাজশাহী জেলার ধরমপুরে। রবিবার রাতে মিরাটের ফালাবাদা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়। অভিযানের নেতৃত্বে ছিলেন মিরাটের পুলিশ সুপার ব্রজেশ কুমার এবং অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অলোক প্রিয়দর্শী। আটকের সময় হান্নানের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় ভারতীয় পাসপোর্ট, আধার কার্ড, ভোটার কার্ড, বাসস্থানের সনদ (ডমিসাইল সার্টিফিকেট), মোবাইল ফোন, বাংলাদেশী সিম কার্ড এবং ২১০ রুপি।

প্রিয়দর্শী জানান, ‘গত বেশ কয়েকবছর ধরে ফালাবাদা এলাকায় অবৈধভাবে বাস করছিল হান্নান। স্থানীয় পঞ্চায়েত অফিস থেকে ভারতে বসবাসের নথি জোগাড় করে ফেলেছিল সে। এরপর সেই নথি দেখিয়েই ভারতীয় পাসপোর্ট, আধার কার্ড, প্যান কার্ড এবং ভোটার কার্ডও তৈরি করে নেয় হান্নান।’

পুলিশি জেরায় হান্নান জানান, কয়েক বছর আগে বাংলাদেশে নিজের বাড়ি থেকে পালিয়ে অবৈধভাবে ভারতে চলে আসে। মিরাটে বসবাসের আগে কলকাতা, বিহার, দিল্লি, লুধিয়ানাসহ বেশ কিছু জায়গায় অবস্থান করেছিল। ২০০৬ সালে শাবানা নামে ফালাবাদা’র স্থানীয় এক নারীর সঙ্গে বিয়ে হয় হান্নানের। এরপর তাঁর শ্বশুর সেখানে থাকার যাবতীয় পরিচয়পত্র জোগাড় করে দেয় হান্নানকে।

ভারতীয় পাসপোর্ট দেখিয়েই কয়েকমাস আগে এক মাসের ভিসাও পায় হান্নান এবং বাংলাদেশে নিজের পরিবারের সঙ্গে সময় কাটিয়ে ফের ভারতে ফিরে আসে। এসটিএফ’এর প্রাথমিক অনুমান অবৈধ কোন কাজের সঙ্গে যুক্ত থাকতে পারে হান্নান, আর সেই কারণেই তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বর্তমানে সৌদি আরবে একটি বিউটি পার্লারে কাজ করে হান্নানের স্ত্রী শাবানা এবং আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই সৌদি ছেড়ে নিজের গ্রামে ফিরে আসার কথা ছিল শাবানার। পুলিশ আরও জানায়, ফালাবাদা এলাকায় জমি কিনে সেখানে বাড়ি তৈরির পরিকল্পনা ছিল হান্নানের। ভারতে অবৈধভাবে বসবাসের অভিযোগে হান্নানের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৪ ফরেনার্স অ্যাক্টসহ সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। খুব শিগগির হান্নানকে বাংলাদেশে ফেরত পাঠানো হবে বলেও জানিয়েছে পুলিশ।

Leave a Reply

Top